ছাগল চুরির অভিযোগে দুই শিশুকে গাছের সাথে বেধে নির্যাতন, গ্রেফতার ৩

0
22

উজ্জ্বল রায়, জেলা প্রতিনিধি নড়াইল থেকেঃ নড়াইলে ছাগল চুরির অভিযোগে দুই শিশুকে গাছের সাথে বেধে নির্যাতন, গ্রেফতার ৩।
নড়াইলে পল্লীতে ছাগল চুরির অপরাধে দুই শিশুকে গাছের সাথে বেধে অমানবিক নির্যাতন করা হয়ছে।গত মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার এড়েন্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ওই দুই শিশুরা হলেন,উপজেলার পদ্দবিলা গ্রামের আসাদের ছেলে আজিজুর (১৩) এবং সারুলিয়া গ্রামের বিল্লাল শিকদারের ছেলে জয় শিকদার (১৪)। ওই দুই শিশু নির্যাতনের ভিডিও মুহুর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে কিন্তু তখনও কোন নির্যাতনকারীকে আটক করেনি পুলিশ,এমন নেক্কার জনক ঘটনায় সুশিল সমাজের নিন্দা এবং নির্যাতনকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচারের যোর দাবী জানান।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,ওইদিন দুপুরে উপজেলার এড়েন্দা গ্রামের জহুর শেখ এর স্ত্রী দোলেনা বেগমের ২ টি ছাগল আজিজুর ও জয় চুরি করে পালানোর চেষ্টা করছিল এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ওই দুই শিশু কে গাছের সাথে বেধে ওই পরিবারের লোকসহ স্থানীয় লোকজন বেধড়ক মারধর করে এবং পরে চুরির অভিযোগে তাদের পুলিশে দেয়া হয়।পরদিন বুধবার ওই দুই শিশুর বিরুদ্ধে কোন লিখিত অভিযোগ না থাকায় লোহাগড়া থানা পুলিশ তাদের অভিভাবকদের জিম্মায় তাদের ছেড়ে দেয়। এরপর বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) শিশু আজিজুর এর পিতা বাদি হয়ে ৫ জন কে আসামী ও অজ্ঞাত আরো ৩/৪ জনকে আসামী করে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২ শিশু সহ মোট ৩ জন কে গ্রেফতার করে।ভুক্তভোগী আজিজুর এর পিতা বলেন,আমার ছেলেকে বিনা অপরাধে ওরা গাছের সাথে বেধে মারছে আমি প্রশাসনের নিকট এর সুষ্ঠু বিচার চাই। শিশু আজিজুর কান্না জড়িত কণ্ঠে সাংবাদিকদের বলেন,আমি ছাগল চুরি করিনাই তারপরেও ওরা আমাকে এবং জয়কে গাছের সাথে বেধে অনেক মারছে। অপর শিশু জয় বলেন,আমাকে মেরে আমার হাতের আঙুল ভেংগে দিছে।এ বিষয়ে লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবু হেনা মিলন মুঠোফোনে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শিশু আজিজুর এর পিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন, মামলা দায়েরের পর শিশু সহ মোট ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here