রংপুরে ভোটগ্রহণ শেষে আসছে ফলাফল

0
28

খবর ৭১: ইভিএমের মাধ্যমে মঙ্গলবার দিনভর রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। সন্ধ্যা ৬টার পর ফলাফল আসা শুরু হয়েছে। মোট ২২৯টি কেন্দ্রের মধ্যে রাত ৮টার পর ৪০ কেন্দ্রের ফলাফল পাওয়া গেছে। এতে লাঙল প্রতীক ২২ হাজার ৫৩৭, হাতি প্রতীক (স্বতন্ত্র) চার হাজার ১৪৮ ভোট এবং নৌকা প্রতীক পেয়েছে তিন হাজার ৭৯৭ ভোট। এছাড়া হাতপাখা প্রতীক পেয়েছে আট হাজার ৭৪০।

রংপুর সিটিতে মেয়র পদে লড়ছেন ৯ জন। তবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে তিন প্রার্থীর মধ্যে। তারা হলেন—সদ্য বিদায়ী মেয়র লাঙল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের প্রার্থী হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া এবং হাতি প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) লতিফুর রহমান মিলন। এছাড়া হাতপাখা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমিরুজ্জামান পিয়াল।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ২২৯ ভোটকেন্দ্রে টানা ভোটগ্রহণ হয়।

নির্বাচন কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, কেন্দ্রে ফলাফল ঘোষণার পর তা সরাসরি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। রিটার্নিং কর্মকর্তা জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে স্থাপিত অস্থায়ী ঘোষণা কেন্দ্র থেকে রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করছেন।

তবে নির্ধারিত সময়ের পরেও কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটারের লাইন দেখা গেছে। নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা বলেছেন, যারা বিকাল সাড়ে ৪টার আগে ভোটের লাইনে এসে দাঁড়িয়েছেন তারা ভোট দিতে পারবেন। তবে এ ধরনের কেন্দ্রের সংখ্যা একেবারেই হাতেগোনা।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল মঙ্গলবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে ঢাকায় নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘রংপুর সিটি নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ব্যাপক ছিল। ভোটগ্রহণ শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলকও হয়েছে।’

এই নির্বাচনে মেয়র পদে নয়জন প্রার্থী; ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ১৮৩ জন এবং ১১টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর পদে ৬৮ জন প্রার্থী; ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে মোট ভোটার চার লাখ ২৬ হাজার ৪৬৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার দুই লাখ ১২ হাজার ৩০২ এবং নারী ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ১৪ হাজার ১৬৭ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here