চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের সুখবর দিলেন তথ্যমন্ত্রী

0
24

খবর৭১ঃ একসময় দেশে সিনেমা হলের সংখ্যা ছিল ১৪০০। গত কয়েক বছরে কমতে কমতে ২০২০ সালে করোনার মধ্যে তা মাত্র ৬৫-তে নেমে আসে। যদিও করোনা পরবর্তী সময়ে সরকারি সহায়তায় সেই সংখ্যা বেড়ে ২১৪ হয়। এই অবস্থায় ফের সিনেমা হল মালিকসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের সুখবর দিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি, প্রযোজক সমিতি এং পরিচালক সমিতির নেতারা। এ সময় সেখানে হাছান মাহমুদ জানান, আরও ১০০টি সিনেমা হল খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা আছে সরকারের। শিগগিরই সেই কার্যক্রম শুরু করা হবে।

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘শনিবার বিকেল’ নামে একটি সিনেমা দীর্ঘদিন ধরে আটকে আছে চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে। এ নিয়ে সম্প্রতি প্রতিবাদ সমাবেশ করেন ছোট ও বড়পর্দার শিল্পী, পরিচালক, প্রযোজক ও কলাকুশলীরা। তারা সেন্সর বোর্ডের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

বৃহস্পতিবারের বৈঠকে সে বিষয়েও কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সিনেমাশিল্পের জন্মের পর থেকেই সেন্সর বোর্ড ছিল, এটা থাকতেই হবে। তবে বোর্ড যাতে অহেতুক কোনো কিছু না করে সেটি অবশ্যই নজরে রাখা হয়। কোনো সিনেমা কৃষ্টি, সংস্কৃতি, ঐতিহ্যের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হলে সেন্সর বোর্ড প্রশ্ন তুলবেই।’

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন চিত্রগ্রাহক সংস্থার সভাপতি আব্দুল লতিফ বাচ্চু, মহাসচিব আসাদুজ্জামান মজনু, নির্বাহী সদস্য সৈয়দ শহীদুল্লাহ দুলাল, এডিটরস গিল্ড সভাপতি আবু মুসা দেবু, পরিচালক সমিতির সহসভাপতি ছটকু আহমেদ, উপমহাসচিব কবিরুল ইসলাম রানা, সাংস্কৃতিক সচিব শাহীন কবির টুটুল। পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু।

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি থেকে তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিথ ছিলেন সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন, সাধারণ সম্পাদক নিপুণ আক্তার, কার্যনির্বাহী সদস্য চিত্রনায়ক রিয়াজ, চিত্রনায়িকা কেয়া, জেসমিন। আরও ছিলেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস ও সংগীতা। তারা সবাই মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here