কাতার বিশ্বকাপে নিরাপত্তার জন্য থাকছে যুদ্ধ বিমান

0
28

খবর৭১ঃ চলতি বছরের নভেম্বর মাসেই শুরু হতে যাচ্ছে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ নামে খ্যাত ফুটবল বিশ্বকাপ। আসন্ন এই টুর্নামেন্টের আয়োজনে কমতি রাখছে না আয়োজক দেশ কাতার। এবার সেই দেশটি দিলো নতুন তথ্য। খেলা চলাকালে ফুটবলারদের নিরাপত্তার জন্য থাকছে যুদ্ধ বিমান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কিউএন।

সংবাদ সংস্থাটি জানায়, গেল সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের ‘ওয়ারটন এয়ার বেজ’-এ টাইফুন যুদ্ধবিমানের উদ্বোধন করা হয় বলে জানা গেছে। যুক্তরাজ্য ও কাতারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীদের উপস্থিতিতে এটি হস্তান্তর করা হয়। আর আগস্ট মাসেই সেটি কাতারে আনা হবে বলেও জানিয়েছে কিউএনএ।

ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণভাবে আয়োজিত হতে যাচ্ছে আসন্ন এই আসরটি। এমনটাই জানিয়েছেন কাতার বিশ্বকাপ আয়োজক কমিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসির আল খাতের। সংবাদমাধমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘আমরা অনন্য এক বিশ্বকাপের আয়োজন করতে যাচ্ছি, যেটি ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে।’

তার সেই কথার আলোকেই এবার আয়োজক কাতার নিয়ে এলো এই যুদ্ধ বিমানটি। আর যুদ্ধবিমানগুলো চালনার জন্য যুক্তরাজ্যের থেকে প্রশিক্ষণ নেবেন কাতারের পাইলটরা।

রাশিয়া, ব্রাজিল বিশ্বকাপের চেয়ে প্রায় ১৫ গুণ বেশি খরচ করছে কাতার। সমুদ্র উপকূলে পড়ে থাকা শামুকের আদলের আল খোর স্টেডিয়াম নির্মাণ করছে তারা। যার অবস্থান কাতারের রাজধানী দোহা থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরে। যেখানে ৪৩ হাজারের বেশি দর্শক একসঙ্গে বসে ২০২২ সালে ফুটবল খেলা দেখতে পারবে।

বিশ্বকাপকে সামনে রেখে কাতার যেসব স্টেডিয়াম তৈরি করেছে তার মধ্যে আল খোর স্টেডিয়াম একটি। বারোটি স্টেডিয়াম তৈরি হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির ঐতিহ্য আর সংস্কৃতির সাথে মিল রেখে। কোনোটি সামুদ্রিক নৌকার, কোনোটি ঝিনুক, কোনটি মরুদ্যানের নকশার আদলে। শুধু বাইরের চাকচিক্যই নয়। এসব স্টেডিয়ামের ভিতরেও থাকছে অভিনবত্ব। খেলোয়াড় আর দর্শকদের জন্য আরামদায়ক আবহাওয়া নিশ্চিত করবে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ প্রযুক্তি। এজন্য ব্যবহার করা হবে সৌরশক্তি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here