পরীমনির জব্দকৃত মালামাল ফেরত দেওয়ার নির্দেশ

0
25

খবর৭১ঃ মাদক মামলায় জামিনে মুক্ত আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনির জব্দকৃত হ্যারিয়ার গাড়ি, আইফোন মোবাইল, ল্যাপটপসহ ১৬টি আলামত ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার শুনানি শেষে এ নির্দেশ দেন।

এদিন পরীমনির উপস্থিতিতে সিআইডির দেওয়া প্রতিবেদনের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

জব্দকৃত অন্য আলামতগুলোর মধ্যে রয়েছে দুইটি ল্যাপটপ, তিনটি আইফোন, একটি আইপেট, একটি মেমরি কার্ড, একটি পেইনড্রাইব, একটি টেলিটক মডেম, একটি মাই স্টাইক, স্ট্যান্ডার্ন ব্যাংকের একটি ভিসা কার্ড, ব্রাক ব্যাংকের একটি গোল্ড কার্ড, ব্রাক ব্যাংকের একটি ভিসা কার্ড ও দুটি পার্সপোর্ট।

গত ৪ আগস্ট র‌্যাবের হাতে আটক হওয়ার পর অভিনেত্রীর এই মালামালগুলো আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়েছিল।

এর আগে গত রবিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক কাজী মোস্তফা কামাল মোট ১৬টি আলামত পরীমনিকে ফেরত দেওয়ার সুপারিশসহ একটি প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেন। তাতে বলা হয়, ‘যদি পরীমনিকে তার থেকে জব্দকৃত আলামত ফেরত দেওয়া হয়, সেক্ষেত্রে তদন্তে কোনো বিঘ্ন ঘটবে না।’

গত ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে গাড়ি, ল্যাপটপ ও মোবাইলসহ ১৬টি জব্দ করা আলামত জিম্মায় চেয়ে আবেদন করেন পরীমনি। এরপর আদালত মালিকানা যাচাই করে তদন্ত কর্মকর্তাকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

গত ৪ আগস্ট বিপুল মাদকসহ পরীমনিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‌্যাব। পরদিন নায়িকার নামে মাদক আইনে মামলা হয় বনানী থানায়। ওইদিন তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এরপর দুই দফায় রিমান্ড শেষে গত ১৩ সেপ্টেম্বর পরীমনিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

কারাগারে যাওয়ার পর আরও এক দফায় রিমান্ডে নেওয়া হয় আলোচিত এই নায়িকাকে। তার বিপরীতে বারবার আবেদন করেও তিনি জামিন পাননি। পরবর্তীতে পরীমনির আইনজীবী হাইকোর্টের দারস্থ হন। হাইকোর্ট অভিনেত্রীর জামিন শুনানি দ্রুত নিষ্পত্তির আদেশ দেন।

এর পরই সুদিনের দেখা পান পরীমনি। কয়েক দফা চেষ্টার পর গত ৩১ আগস্ট তিনি ঢাকার দায়রা জজ আদালত থেকে জামিন পান। ১৯ দিন জেলজীবন কাটিয়ে ১ সেপ্টেম্বর ছাড়া পান গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here