সৈয়দপুরে লকডাউনে বিধি-নিষেধ অমান্য করায় যুবকেব কারাদন্ড

0
76

সৈয়দপুর প্রতিনিধি :
নীলফামারীর সৈয়দপুরে কঠোর লকডাউনে সরকারি আদেশ অমান্য করে অযথা মোটরসাইকেল চালানো, আইনশৃংখলাবাহিনীর সিগন্যাল অমান্য এবং মুখে মাস্ক ব্যবহার না করায় মোশাররফ হোসেন (২৮) নামে এক যুবকের এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও দুই শত টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল শুক্রবার রাতে শহরের পাঁচমাথা মোড়ের বঙ্গবন্ধু চত্বরে ভ্রাম্যামাণ আদালত পরিচালনা করে দন্ডাদেশের ওই রায় ঘোষণা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. রমিজ আলম। দন্ডপ্রাপ্তের বাড়ি শহরের ইসলামবাগ চিনি মসজিদ এলাকায়। সে আলতাফ হোসেনের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, সরকার ঘোষিত চলমান কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিন গতকাল শুক্রবার রাতে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. রমিজ আলম শহরের পাঁচমাথা ট্রাফিক পুলিশ বক্স এলাকায় আইনশৃংখলাবাহিনীর সদস্যদের নিয়ে অবস্থান করছিলেন। এ সময় মোটরসাইকেল আরোহী মো. মোশাররফ হোসেন (২৮) ওই এলাকা অতিক্রমকালে পুলিশ সদস্যরা তাকে দাঁড়ানো জন্য সিগন্যাল দেন। কিন্তু সে পুলিশের সিগন্যাল অমান্য করে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় পুলিশ সদস্যরা তাঁর পিছনে ধাওয়া করে তার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে তাকে আটক করেন। পরে তার কাছে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনে বিধি নিষেধ অমান্য করে বাড়ির বাইরে বের হওয়ার কারণ জানতে চাইলে সে কোন সদত্তুর দিতে পারেনি। এ সময় কঠোর লকডাউনে বিধি নিষেধ ও পুলিশের সিগন্যাল অমান্য করায় ভ্রাম্যমান আদালতে তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও দুই শত টাকা অর্থদন্ড করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী মাজিষ্ট্রেট ও সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. রমিজ আলম। সৈয়দপুর থানার পরিদর্শক ল (তদন্ত) মো. আতাউর রহমান জানান, ভ্রাম্যমান আদালতে দন্ডপ্রাপ্ত মোশাররফ হোসেনকে গতকাল শনিবার সকালে নীলফামারী কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here