আবার বিপদে ‘নবাব এলএলবি’

0
23

খবর৭১ঃ
অনলাইনে মুক্তির পর দুই দফায় নানা ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয়েছিল শাকিব খান ও মাহিয়া মাহি অভিনীত ‘নবাব এলএলবি’কে। সেই ধারাবাহিকতা আবারও বিপদের মুখে অনন্য মামুন পরিচালিত এই সিনেমাটি। ২৫ জুন, শুক্রবার ১৬টি সিনেমা হলে মুক্তি দেয়া হয় ‘নবাব এলএলবি’। কিন্তু ওইদিন বিকালেই সরকারি ঘোষণা আসে, সোমবার থেকে সারা দেশে সীমিত আকারে এবং বৃহস্পতিবার থেকে এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউন। যার জেরে অন্য সবকিছুর মতো বন্ধ থাকবে সিনেমা হলও।

তাহলে ‘নবাব এলএলবি’র কী হবে? হিসাব সহজ, সোমবার থেকে আগামী ১০ দিন বন্ধ থাকবে সিনেমাটির প্রদর্শন। ফলাফল- পরিচালক, প্রযোজক এবং ১৬টি সিনেমা হলের মালিকসহ সংশ্লিষ্ট সবারই মাথায় হাত। এরপর যদি লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়ানো হয়, তবে তো সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে চলার আর কোনো সম্ভাবণাই থাকবে না।

এ প্রসঙ্গে জানতে কথা হয় ‘নবাব এলএলবি’র পরিচালক অনন্য মামুনের সঙ্গে। তিনি জানান, দুদিন হলো সিনেমাটি মুক্তি দিয়েছি। নির্মাণের আগে থেকেই ইচ্ছা ছিল সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেব। কিন্তু গত বছর একটা লম্বা সময় ধরে সিনেমা হল বন্ধ থাকায় ‍ওটিটিতে মুক্তি দিতে বাধ্য হই। এখন যখন সিনেমা হলে মুক্তি দিলাম, আবার শুরু হয়ে গেল লকডাউন। বিরাট ক্ষতির মুখে পড়ে গেলাম।’

মামুন আরও বলেন, ‘শুক্রবার মুক্তি দেয়ার পর সিনেমা হলগুলোতে দর্শক কিছুটা কম হলেও শনিবার অনেক বেড়ে যায়। অনেকেই জানে না ‘নবাব এলএলবি’ হলে মুক্তি পেয়েছে। কারণ, সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়া আমরা সেভাবে প্রচার চালাতে পারিনি। সবাই যখন জানতে শুরু করেছে, প্রেক্ষাগৃহে দর্শক বাড়তে শুরু করেছে, সেই মুহূর্তে এসে গেল বন্ধের ডাক। আসলে আমাদের কিছু করার নেই। ভাগ্যকে মেনে নিতেই হবে।

এর আগে গত বছরের ডিসেম্বরে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আই থিয়েটারে মুক্তি পায় ‘নবাব এলএলবি’। কিন্তু সেখানে সিনেমার অর্ধেক অংশ থাকায় ক্ষেপে যান দর্শকরা। তারা এই সিনেমাকে বয়কটের ডাক দেন। এমনকি, পরিচালক অনন্য মামুনের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা করার হুঁশিয়ারিও দেন। দর্শকদের সঙ্গে গলা মিলিয়ে সে সময় এই ঘটনার নিন্দা জানান ‘নবাব এলএলবি’র প্রধান দুই চরিত্র শাকিব খান এবং মাহিয়া মাহিও।

এই বিতর্ক শেষ না হতেই সিনেমার একটি দৃশ্যের সংলাপকে ঘিরে শুরু হয় নতুন বিতর্ক। ওই সংলাপে একজন ধর্ষিতা নারী হিসেবে অংশ নেন আরেক চিত্রনায়িকা অর্চিতা স্পর্শিয়া এবং অভিনেতা শাহীন মৃধা, যিনি পুলিশের চরিত্রে অভিনয় করেন। ওই দৃশ্যে দেখা যায়, ধর্ষণের শিকার হয়ে অর্চিতা স্পর্শিয়া থানায় যান অভিযোগ জানাতে। সেখানে পুলিশ অফিসার শাহীন মৃধা তাকে আপত্তিকর কিছু প্রশ্ন করেন, যা বলা বা লেখা যায় না।

সোশ্যাল মিডিয়াজুড়ে ওই দৃশ্য ও সংলাপ ছড়িয়ে পড়ার পর পুলিশ বাদী হয়ে পরিচালক অনন্য মামুন এবং দুই অভিনয়শিল্পী অর্চিতা স্পর্শিয়া ও শাহীন মৃধার নাম উল্লেখ করে রমনা থানায় মামলা করে। গ্রেপ্তার করা হয় অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধাকে। পরবর্তীতে তারা জামিনে ছাড়াও পান। তবে সে সময় মামলার এজাহার থেকে বাদ দেয়া অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়ার নাম। পুলিশ জানায়, বিতর্কিত ওই সংলাপে তার কোনো দায় নেই।

এত সব বিতর্কের পর যখন ‘নবাব এলএলবি’ সিনেমা হলে মুক্তি পেল, পরিচালক, প্রযোজক ও অভিনয়শিল্পীদের মনের ইচ্ছা পূরণ হলো, ঠিক তখনই দেশজুড়ে এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা। আপাতত তাই এক সপ্তাহের অপেক্ষা ‘নবাব এলএলবি’ টিম ও সিনেমা হল মালিকদের জন্য। এরপর কী হবে, তা তো সময়ই বলবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here