সুন্দরগঞ্জে স্কুল ছাত্রী ও যুবকের আত্মহত্যা

0
48

আবু বক্কর সিদ্দিক, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ছাপড়হাটী ও কি বাড়ি ইউনিয়নে নিজের শয়নঘরের ধর্ণার সাঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে রুবেল মিয়া (২২) ও মুক্তা আক্তার (১৫) নামে দুইজন আত্মহত্যা করেছে।
স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার বিকেলে ছাপড়হাটী ইউনিয়নের দক্ষিণ মরুয়াদহ (ছমিরের বাজার) গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে রুবেল মিয়া নিজের শয়নঘরের ধর্ণার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। রুবেল মিয়া একজন মাতাল প্রকৃতির। সে ইতোপূর্বে কয়েক দফা আত্মহত্যার চেষ্টা চলিয়েছিল। রুবেল মাদকদ্রব্যসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকায় তাঁর স্ত্রী কয়েক দিন আগে বাবার বাড়ি চলে যায়। এরই একপর্যায়ে রুবেল মিয়া আত্মহত্যা করেছে বলে পারিবারিক সুত্র জানায়। এদিকে, এরআগে ভোর রাতে কি বাড়ি ইউনিয়নের দক্ষিণ কালীর খামার গ্রামের গোলাম মোস্তফার মেয়ে ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী মুক্তা বেগমকে তাঁর পঁছন্দের ছেলের সঙ্গে বিয়ে না দিয়ে অন্যত্রে বিয়ে দেয়ার প্রস্তুতি নেয়ায় নিজের শয়নঘরের ধর্ণার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে থানার এসআই রফিকুল ইসলাম ও কি বাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোকলেছুর রহমান সরকার পৃথক দুই মরদেহ উদ্ধার পূর্বক সুরুতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করেন। থানার নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) বুলবুল ইসলাম জানান, পৃথক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহিল জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here