ইউক্রেনে আর বড় কোনো হামলা চালানোর পরিকল্পনা নেই: পুতিন

0
39

খবর ৭১: রাশিয়া চায় না ইউক্রেন ধ্বংস হয়ে যাক। তাই আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে দেশটিতে অভিযান শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) কাজাখস্তানের রাজধানী আস্তানায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন রুশ প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, চলতি সপ্তাহে ইউক্রেনে আর বড় কোনো হামলা চালানোর পরিকল্পনা তার নেই।

ইউক্রেন যুদ্ধে পরাজয়ের আশঙ্কায় পুতিন গত তিন সপ্তাহ আগে যে সেনাসমাবেশের অনুমতি দিয়েছিলেন সেটি বন্ধ করা হবে। পুতিনের ভাষ্য, প্রক্রিয়াটি আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। তারপর নতুন করে ইউক্রেনে সেনাসমাবেশের পরিকল্পনা ক্রেমলিন করছে না। সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপের সময় ইউক্রেনের সঙ্গে ফের আলোচনার ইঙ্গিত দেন রুশ প্রধান।

নিজ বক্তব্যে পুতিন বলেছেন, বিদ্যমান সামরিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য আমরা দেশটিতে সামরিক অভিযান শুরু করেছিলাম। ইউক্রেনকে শেষ করে দেওয়ার মতো কোনো ইচ্ছা আমাদের ছিল না।

এদিকে, গত রাতে দেওয়া এক ভিডিও ভাষণে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি তার দেশের দখল হয়ে যাওয়া অঞ্চলগুলো পুনরুদ্ধারের ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেন, তাদের কাছে (রাশিয়ার) যুদ্ধক্ষেত্রে পাঠানোর মতো জনবল আছে, অস্ত্র-ক্ষেপণাস্ত্র আছে। ইরানের তৈরি ক্ষেপণাস্ত্র শাহেদও আছে। যা তারা ব্যবহার করতে চায়। এখনও আমাদের শহরগুলোয় তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সম্ভাবনা রয়েছে। বিশ্বকে তারা ব্ল্যাকমেল করছে। কিন্তু তাদের সফল হওয়ার কোনো সুযোগ নেই, এবং থাকবে না। কারণ ইউক্রেন এগিয়ে যাচ্ছে।

সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে আলাপের কথাও এ সময় জানান জেলেনস্কি। তিনি বলেন, আমরা আমাদের দেশ ও জনগণের স্বার্থে একসঙ্গে কাজ করার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমি বিশ্বাস করি, আমাদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব। তা হবে।

অপরদিকে, আস্তানার সংবাদ সম্মেলনে ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের জন্য অনুতপ্ত নন বলে জানান পুতিন। তার মতে, অভিযানটি অবশ্যম্ভাবী ছিল।

সামনে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন। এতে পুতিন অংশ নেবেন কিনা, নিলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন কিনা, জানতে চান সাংবাদিকরা। এ ব্যাপারে পরিষ্কার কিছু জানাননি রুশ প্রধান। এ ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলেই জানান তিনি।

সূত্র: সিবিসি নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here