সানি হত্যার মূলহোতা মঈনসহ তিন আসামি গ্রেফতার

0
32

খবর৭১ঃ রাজশাহীর কিশোর সানি (১৭) হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ তিন আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। র‌্যাব-৫ এর একটি অভিযানিক দল বৃহস্পতিবার রাতে কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট থেকে গ্রেফতার করে সানি হত্যা মামলার প্রধান আসামি মঈন ওরফে আন্নাফকে (২১)।

সেই সঙ্গে একই মামলার আসামি মঈনের মা বিথী খাতুন (৩৬) ও অপর আসামি হাবিবী কুমকুম ওরফে ঐশিকেও (২০) গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব-৫ এর সদর দপ্তরে শুক্রবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলন করা হয়। র‌্যাব-৫ অধিনায়ক লে. কর্নেল রিয়াজ শাহরিয়ার ব্রিফিংকালে জানান, গত ৩ জুলাই রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে অপহরণ করে কিশোর সানিকে হেতেমখাঁ সাহাজীপাড়ার একটি সড়কের ওপর প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করে কিশোর সন্ত্রাসী মঈন ও তার সহযোগীরা। এরপর আসামিরা সীমান্ত পথে ভারতে পলায়নের চেষ্টা করে। কিন্তু র‌্যাবের কঠোর নজরদারির কারণে তারা ভারতে পালাতে ব্যর্থ হয়। গ্রেফতার এড়াতে তারা দেশের বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপন করেন।

র‌্যাব সূত্র আরও জানায়, দুর্ধর্ষ কিশোর সন্ত্রাসী মঈন ওরফে আন্নাফ ও তার মা বিথী খাতুন ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরে চার দিন অবস্থানের পর জামালপুর-ময়মনসিংহ হয়ে কুড়িগ্রামের সীমান্ত এলাকা রাজারহাট উপজেলার প্রতাপগ্রামের মেজবাউদ্দিন বিদ্যুতের বাড়িতে আশ্রয় নেন। র‌্যাবের গোয়েন্দা দল তাদের অবস্থান শনাক্তের পর বৃহস্পতিবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে প্রতাপগ্রামের বিদ্যুতের বাড়ি থেকে মঈন ওরফে আন্নাফ, তার মা বিথী খাতুন ও আরেক আসামি হাবিবী কুমকুম ওরফে ঐশিকে গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারের পর তাদের রাজশাহীর র‌্যাব-৫ সদর দপ্তরে আনা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা সানি হত্যার কথা স্বীকার করেন। বিকালে তিন আসামিকে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এর আগে ৬ জুলাই রাতে সানি হত্যার অপর দুই আসামি রাহিম (২১) ও শাহীকে (২০) ঢাকার শ্যামলী ও নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাবের পৃথক একটি অভিযানিক দল।

র‌্যাব-৫ সূত্রে আরও জানা যায়, সানি হত্যায় জড়িতরা একটি দুর্ধর্ষ কিশোর গ্যাংয়ের সন্ত্রাসী সদস্য। নগরীর বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজি ও ছিনতাই ছিল তাদের মূল পেশা। চাঁদাবাজি ও ছিনতাই ঘটনায় বাধাদান করায় সানিকে তারা প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করে। র‌্যাব পৃথক অভিযানে সানি হত্যার ১০ জন আসামির মধ্যে প্রধান আসামি মঈন ওরফে আন্নাফসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করল।

এদিকে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম জানান, ঘটনার পরদিন সানি হত্যাকাণ্ডে জড়িত আনিম ওরফে আনিম ইসলাম (২১) নামের এক আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here