দুই সপ্তাহের যুদ্ধে ৫৪৬৯ সেনা হারিয়েছে ইউক্রেন: রাশিয়া

0
30

খবর৭১ঃ ঈদুল আজহার বাকি আর মাত্র কদিন। এই ঈদ উৎসব ঘিরে চলছে জোর প্রস্ততি। প্রতি বছরের ন্যায় এবারো ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে জাতীয় ঈদগাহ মাঠ। যেখানে প্রায় একসঙ্গে ৩০-৪০ হাজারে মানুষ ঈদের নামাজ আদায় করতে পারবেন। ইতোমধ্যে নামাজের মাঠ প্রস্তুত করার কাজ শেষ পর্যায়ে। এরপরেই শুরু হবে সামিয়ানা টাঙানোর কাজ।

সোমবার জাতীয় ঈদগাহ মাঠ সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, শ্রমিকরা পুরো মাঠে প্রস্ততের কাজ করছেন। ৬৫০ ফুট দৈর্ঘ্য এবং ৩৬০ ফুট প্রস্থের মাঠে বাঁশ বাধার কাজ চলছে বেশ জোরেশোরে।

এর আগে গত ১৩ জুন থেকে ঈদগাহ ময়দান প্রস্তুতের কাজ শুরু হয়। প্রতিদিন ৮০ জন শ্রমিক কাজ করছেন। আগামী ৮ জুলাইয়ের মধ্যে নামাজের জন্য ময়দান পুরোপুরি প্রস্তুত করে বুঝিয়ে দিতে হবে।

জাতীয় ঈদগাহে নামাজের পাশাপাশি থাকবে অজুর ব্যবস্থাও। এখানে ১৪০ জন মুসল্লি একসঙ্গে অজু করতে পারবেন। মোট ১০টি এয়ার কুলারের ব্যবস্থা থাকবে। মাঠে ৫৫০টি সিলিং ফ্যান, ১৫০টি স্ট্যান্ড ফ্যান, ৪০টি মেটাল লাইট ও ৭শ টিউব লাইট লাগানো হবে।

এছাড়া ভ্রাম্যমাণ টয়লেট, প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা, বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা, ফায়ার সার্ভিসের অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত থাকবে।

জাতীয় ঈদগাহ মাঠে কর্মরত শ্রমিক খালেক মিয়া ঢাকা টাইমসকে তারা কয়েকদিন ধরে মাঠের মধ্যে বাঁশ বাঁধার কাজ করছেন। এই কাজ সারা হলে সামিয়ানা টাঙানো হবে। ধীরে ধীরে অন্যান্য সব কাজ শেষ করা হবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘ঈদের আগেই ঈদগাহ মাঠের সম্পূর্ণ কাজ শেষ হবে। ঈদের প্রধান জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায়। এছাড়া ২৫০ জন ভিআইপি পুরুষ এবং ১শ জন ভিআইপি নারীর জন্য ঈদের নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা করা হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here