সৈয়দপুরে ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষা দিতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা

0
109

মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুর :
সৈয়দপুরে ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষার হলে প্রবেশের সময় সঞ্জয় রায় নয়ন (২৫) নামে স্কুল শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার এক পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে শহরের কয়ানিজ পাড়া উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে আটকের ওই ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে আটক ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে রাতে সৈয়দপুর থানায় মামলা করেছেন পরীক্ষার কেন্দ্র সচিব ও প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল্লাহ।
মামলা সুত্রে জানা যায়,
গতকাল শুক্রবার ছিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০২০। পরীক্ষা গ্রহণের ৭ নং কেন্দ্রটি ছিল শহরের কয়ানিজপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়। ওই কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা প্রবেশ করার সময় তাদের উদ্দেশ্যে মাইকে জানানো হয়, পরীক্ষার হলে কোন প্রকার ঘড়ি,মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেরসহ অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী নেয়া যাবেনা। কিন্তু সে নির্দেশনা অমান্য করে পরীক্ষা হলে প্রবেশের চেস্টা করে পরীক্ষার্থী সঞ্জয় রায় নয়ন। এসময় ওই কেন্দ্রের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. মোজাম্মেল হক রাসেলের উপস্থিতিতে পরীক্ষার্থী নয়নের দেহ তল্লাশীকালে তার বাম হাতের কনুইয়ে বিশেষ কায়দায় রাখা সীমকার্ড সংযুক্ত ইংরেজিতে লেখা মাস্টার কার্ড গোল্ড নামের সোনালী রংয়ের ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস উদ্ধার করা হয়। এসময় তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে সে জানায়, ডিভাইস ব্যবহার করে সঠিক প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবে। পরে আটক ওই পরীক্ষার্থীকে থানায় নিয়ে আসেন পুলিশের উপ পরিদর্শক মারুফ – উল ইসলাম। থানায় আটক নয়ন জানায়, ঢাকার এক বড় ভাইয়ের কাছে ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে ওই ডিভাইস সংগ্রহ করেছে। এ ব্যাপারে ওই পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব ও কয়ানিজ পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল্লাহ বাদি হয়ে শুক্রবার রাতে থানায় একটি মামলা করেছেন। আসামি নয়নের বাড়ি নীলফামারী সদর উপজেলার কানিয়াল খাতা এলাকার কালীতলায়।

সে ওই এলাকার সুরঞ্জন কুমার রায়ের পুত্র।
মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল হাসনাত খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here