বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এবার প্রামাণ্যচিত্র বানাচ্ছেন আরেক ভারতীয় নির্মাতা

0
14

খবর৭১ঃ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী নিয়ে এরই মধ্যে সিনেমা বানিয়েছেন ভারতের বিখ্যাত পরিচালক শ্যাম বেনেগাল। সেটির নাম ‘মুজিব’। সেখানে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের ছোট ও বড় পর্দার একঝাঁক তারকা। ছবিটি বর্তমানে মুক্তির অপেক্ষায়। এবার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে প্রমাণ্যচিত্র বানাচ্ছেন ভারতের আরেক চলচ্চিত্র নির্মাতা গৌতম ঘোষ।

এ লক্ষ্যে ওপার বাংলার এই প্রখ্যাত নির্মাতা বর্তমানে রয়েছেন বাংলাদেশে। শুক্রবার তিনি হাজির ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ সম্মেলনে। সেখানেই গৌতম ঘোষ বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে প্রমাণ্যচিত্র বানানোর ব্যাপারে বিস্তারিত জানান। নির্মাতা বলেন, এরই মধ্যে তিনি বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা বইগুলো থেকে ‘কলকাতায় বঙ্গবন্ধু’ নামে প্রামাণ্যচিত্রের একটি স্ক্রিপ্ট তৈরি করেছেন।

শুক্রবারের ওই সাংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. এ কে আব্দুল মোমেন ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমও উপস্থিত ছিলেন। সেখানে নির্মাতা গৌতম ঘোষ বলেন, ‘কলকাতার দিনগুলোতে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন নিয়ে অনেক লেখালেখি ও গবেষণা হয়েছে। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি, তার আত্মজীবনী এবং তাঁকে নিয়ে লেখা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বইগুলো থেকে পাওয়া তথ্যগুলো সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য।’

গৌতম ঘোষ আরও জানান, ‘কলকাতায় বঙ্গবন্ধু’ প্রামাণ্যচিত্রের ব্যাপ্তি হবে ৩০ মিনিট। এই নির্মাতা বর্তমানে ঢাকা ও টুঙ্গিপাড়ার বিভিন্ন লোকেশনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর প্রামাণ্যচিত্রের শুটিং করতে এক সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশ সফর করছেন। তিনি জানান, প্রামাণ্যচিত্রটির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হয়েছেন।

নির্মাতা বলেন, ‘তার (শেখ হাসিনা) সম্মতি পেয়ে আমি খুবই খুশি। আমি বিশ্বাস করি, আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে বঙ্গবন্ধুর কলকাতার জীবন সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাব।’

গৌতম ঘোষ গত ৪ এপ্রিল কলকাতায় মাওলানা আজাদ কলেজের একটি শ্রেণিকক্ষে শুটিংয়ের মাধ্যমে প্রামাণ্যচিত্রটির কাজ শুরু করেন। বঙ্গবন্ধু যখন ১৯৪৫-৪৬ শিক্ষাবর্ষে সেখানে পড়াশোনা করতেন, তখন এটির নাম ছিল ইসলামিয়া কলেজ। নির্মাতা বলেন, ‘কলকাতায় ছবির শুটিং করার সময় আমি আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়ি। যখন আমি ক্যামেরা চালাচ্ছিলাম আমার মনে হচ্ছিল বঙ্গবন্ধু কলকাতার রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন।’

গৌতম ঘোষ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর জীবনের কলকাতার অংশ নিয়ে অনেক লেখা পাওয়া গেলেও অডিও ভিজ্যুয়াল আকারে তা খুব একটা তুলে ধরা হয়নি।’ ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ ছবিটি বানিয়ে বাংলাদেশের দর্শকদের কাছে ব্যাপক প্রশংসিত হওয়া এই নির্মাতা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর উপর এ ধরণের তথ্যচিত্র তৈরি করা একটি বিশাল দায়িত্ব। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here