শৈলকুপায় নৌকার কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা, আহত ২০

0
18

রাব্বুল ইসলাম, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের শৈলকুপায় নৌকার কর্মী সমর্থকদের উপর অকর্কিত হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে হারান বিশ্বাস (৬৫) নামের এক নৌকার কর্মী নিহত হয়েছে। হামলায় আহত হয়েছে আরো অন্তত ২০ জন। আহতরা বর্তমানে শৈলকুপা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এদের মধ্যে গুরুত্বর আহত রবিউল, রজব আলী ও ইয়ার উদ্দিনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় সারুটিয়া ইউনিয়নের কাতলাগাড়ী বাজারে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহমুদুল হাসান মামুনের কর্মী সমর্থকরা নির্বাচনী অফিসে বসা ছিলো। এসময় স্বতন্ত্র প্রার্থী জুলফিকার কাইসার টিপুর লোকজন সেখানে দেশীয় ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়।

হামলাকারীরা হারান বিশ্বাসসহ অন্তত ২০ জনকে কুপিয়ে জখম করে। আহতদের উদ্ধার করে শৈলকুপা হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হারান বিশ্বাস মৃত্যু বরণ করেন। তিনি কৃত্তিনগর গ্রামের মৃত বিলাত আলীর ছেলে। তিনি স্ব-পরিবারে আবাসন প্রকল্পে বসবাস করতেন।
সারুটিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও নৌকা প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, নৌকার কর্মী সমর্থকদের উপর পরিকল্পিত অতর্কিত হামলার ঘটনায় তার কর্মী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে আরো অন্তত ২০জন। এদের মধ্যে অনেকেই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।
নৌকার কর্মী হত্যাকান্ডের মুল হোতা জুলফিকার কাইসার টিপু বলে তিনি দাবী করেন।
শৈলকুপা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here