কেন্দ্রগুলোতে নারী ভোটারদের সরব উপস্থিতি

0
23

খবর৭১ঃ বগুড়ার শিবগঞ্জ এবং শেরপুর উপজেলার ২০টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল আটটায় ভোট শুরু হয়।

ভোট শুরুর অনেক আগে থেকেই কেন্দ্রে গিয়ে হাজির হয়েছেন অনেক ভোটার। পুরুষের পাশাপাশি নারী ভোটারদের উপস্থিতিও ছিল চোখে পড়ার মতো। কুয়াশা কেটে শীত কমে যাওয়ার পরপরই নারী ভোটাররা কেন্দ্রে আসতে থাকেন। সকাল সকাল ভোট দেওয়াটাকে স্বস্তির মনে করায় অনেক নারী আগেই কেন্দ্রে হাজির হন।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের উপস্থিতি আরও বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

২৩৪টি কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এসব কেন্দ্রের মধ্যে শিবগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের ১৫টি কেন্দ্রে ইলেকট্রিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা।

এখনও পর্যন্ত ২০ ইউনিয়নের কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। ভোটের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কেন্দ্রগুলোতে মোতায়েন রয়েছে পুলিশ, র‌্যাব এবং বিজিবি।

বগুড়ার সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় থেকে পাওয়া তথ্যমতে, বগুড়া শিবগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে এবং শেরপুর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। শিবগঞ্জের ১১টি ইউনিয়ন হলো- ময়দানহাট্টা, কিচক, আটমূল, পিরব, মাঝিহট্ট, বুড়িগঞ্জ, বিহার, শিবগঞ্জ, সৈয়দপুর, দেউলী। এই ১১টি ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১২৫টি। এরমধ্যে ৮৩টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ইউনিয়নগুলোতে মোট ভোটার রয়েছেন ২ লাখ ৬৬ হাজার ৮৯৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৩ হাজার ৫৮৭ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৩৩ হাজার ৩০৯ জন। ১১টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত নারী সদস্য এবং সাধারণ সদস্য পদে ৫৬৯জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যানপদে প্রার্থী রয়েছেন ৫০ জন।

শেরপুরের যে নয়টি ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে সেগুলো হলো ভবানীপুর, বিশালপুর, খামারকান্দি, খানপুর, কুসুম্বি, মির্জাপুর, শাহবন্দেগী, সিমাবাড়ী এবং সুঘাট। ৯টি ইউনিয়নে ১০৯টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে ৪৮টি কেন্দ্রকে। এই ইউনিয়নগুলোতে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ১০ হাজার ৫৬৬। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩ হাজার ৪৭৮ এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ৭ হাজার ৮৮ জন। ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত নারী সদস্য এবং সাধারণ সদস্য পদে প্রার্থীর সংখ্যা ৪৪২ জন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী রয়েছেন ৩৯ জন।

দুই উপজেলার ২০টি ইউনিয়নে সাতজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবং প্রতিটি ইউনিয়নে একজন করে ২০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভোটে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারেন সেজন্য শিবগঞ্জের কেন্দ্রগুলোতে ব্যাপক পুলিশসহ ৩ প্লাটুন বিজিবি, ৩ প্লাটুন র‌্যাব মোতায়েন রয়েছে। শেরপুরে পু‌লিশ সদ‌স্যের পাশাপা‌শি দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) উম্মে কুলসুম সম্পা বলেন, ইউপি নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ভোট কেন্দ্রে এক্সিকিউটি ম্যাজিস্ট্রেটরা সার্বক্ষণিক নজরদারি করছেন। পুলিশ প্রশাসন, র‌্যাব এবং বিজিবি মোতায়েন রয়েছে।

শেরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মইনুল ইসলাম জানান, সকল অপ্রীতিকর ঘটনা রোধ করতে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে দুইজন করে ম্যাজিস্ট্রেট দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here