৭০০ বছরের প্রাচীন এই দুর্গে হবে ভিকি-ক্যাটরিনার বিয়ে

0
64

খবর৭১ঃ এখনও পর্যন্ত কেউই সম্পর্কের কথা স্বীকার করেননি। তবে ইতোমধ্যে অনুরাগীদের মধ্যে ভিকি কৌশল এবং ক্যাটরিনা কাইফের বিয়ের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। সম্প্রতি তাদের এনগেজমেন্ট-এর খবরও ছড়িয়ে পড়ে। জল্পনা, চলতি বছরের ৭ থেকে ৯ ডিসেম্বরের মধ্যে তারা বিয়ে করতে চলেছেন।

জল্পনা সত্যি হলে রাজস্থানের একটি বহু পুরনো দুর্গে হবে তাদের ডেস্টিনেশন ওয়েডিং। অন্তত ৭০০ বছরের প্রাচীন একটি দুর্গ, যেটি বর্তমানে বিলাসবহুল রিসোর্ট। সেখানেই নাকি বিয়ে সারবেন আলোচিত এই জুটি।

১৪ শতকে চৌহানদের হাতে তৈরি হয়েছিল এই বারওয়াড়া দুর্গ। রাজস্থানের বাঘের জেলা বলে জনপ্রিয় রণথোম্বরে অবস্থিত এটি। একটি সংস্থা সম্প্রতি এটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নেয় এবং এটিকে রিসোর্টে পরিণত করে। গত ১৫ অক্টোবর থেকে রিসোর্টটি চালু হয়েছে।

এই বিশালাকার দুর্গের মধ্যে দুটি প্রাসাদ রয়েছে। সঙ্গে রয়েছে অনেক মন্দির। এই প্রাসাদগুলোতে থাকার বন্দোবস্ত রয়েছে। সেখানে রয়েছে মোট ৪৮টি শোয়ার ঘর। ঘরগুলো সম্পূর্ণ রাজস্থানের ভাস্কর্য দিয়ে মোড়া। ঘরের দেয়াল থেকে শুরু করে বিছানার চাদর, সবখানেই রাজস্থানের ছোঁয়া।

রিসোর্টের ভেতরে তিনটি রেস্তোরাঁ, দুটি সুইমিং পুল এবং একটি স্পা রয়েছে। ৩০ হাজার বর্গ ফুট এলাকা জুড়ে বিস্তৃত ওই স্পা। রয়েছে একটি পানশালাও। অতিথিদের শরীরচর্চার জন্য একটি ফিটনেস কেন্দ্রও গড়ে তোলা হয়েছে। সেখানে যাবতীয় অত্যাধুনিক সরঞ্জাম যেমন রয়েছে, পাশাপাশি আয়ুর্বেদিক উপায়ে রোগ সারানোর ব্যবস্থাও রয়েছে।

এই রিসোর্টের পাশেই রয়েছে বারওয়াড়া হ্রদ। স্থানীয়দের কাছে এই হ্রদ খুবই পবিত্র। এই রিসোর্টের দেখভালের জন্য স্থানীয়দেরই নিযুক্ত করা হয়েছে। রিসোর্টের কাছেই রয়েছে রণথোম্বর জঙ্গল। তার জীববৈচিত্রে যাতে কোনো খারাপ প্রভাব না পড়ে, সেদিকে বিশেষ নজর দেন স্থানীয়রা।

নতুন নতুন খোলার কারণে ভালো সুযোগ দিচ্ছে এই রিসোর্ট। প্রতি রাতে মাথাপিছু ৬৫ হাজার টাকায় (কর আলাদা) কাটিয়ে আসতে পারেন এই রাজকীয় রিসোর্টে। এই টাকায় ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ এবং ডিনার অন্তর্ভুক্ত।

এখানে নানা ধরনের রাজস্থানি খাবারের স্বাদ নিতে পারবেন অতিথিরা। রাঁধুনীরা আপনার পছন্দমতো বিভিন্ন রাজস্থানি পদ হাজির করবেন। প্রতিটি পদই স্থানীয় সবজি এবং মশলা দিয়ে তৈরি হবে। খবর সত্যি হলে, এখানেই বসবে ভিকি-ক্যাটরিনার বিয়ের আসর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here