বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের অনুমোদন পেল সাত প্রতিষ্ঠান

0
18

খবর৭১ঃ অবশেষে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রবাসী ও বিদেশগামীদের করোনা শনাক্তে প্রয়োজনীয় র‌্যাপিড পিসিআর নমুনা পরীক্ষার অনুমোদন পেয়েছে সাতটি বেসরকারি ল্যাব।

বুধবার রাতে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই অনুমোদনের কথা জানানো হয়।

নমুনা পরীক্ষার মূল্য ও ল্যাব স্থাপনের সময় বিবেচনায় নিয়ে এসব ল্যাবকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এসব বেসরকারি ল্যাবে প্রবাসী ও বিদেশগামীরা সর্বনিম্ন এক হাজার ৭০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ দুই হাজার ৩০০ টাকায় নমুনা পরীক্ষা করাতে পারবেন।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে অনুষ্ঠিত এক ভার্চুয়াল বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়।

বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর পরীক্ষা না করালে বাংলাদেশসহ পাঁচটি দেশের নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকার। এ নির্দেশনায় বিপাকে পড়েন দেশটি থেকে বাংলাদেশে ছুটি কাটাতে আসা প্রবাসীরা। মঙ্গলবার তারা মন্ত্রণালয়ে অনশনও পালন করেন। পরে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর মেশিন স্থাপনের উদ্যোগ নেয় প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, বিমানবন্দরে দ্রুত ও কম খরচে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবগুলোকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিন থেকে পাঁচ দিনের মধ্যে তারা ল্যাব বসাবে বলে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

অনুমোদন পাওয়া ল্যাবগুলো হলো— স্টেমজ হেলথ কেয়ার (বিডি) লিমিটেড ঢাকা, সিএসবিএফ হেলথ সেন্টার, এএমজেড হাসপাতাল লিমিটেড, আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জয়নুল হক সিকদার ওমেন্স মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হসপিটাল, গুলশান ক্লিনিক লিমিটেড ও ডিএমএফআর মলিকুলার ল্যাব অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বিমানবন্দরে বেসরকারিভাবে পিসিআর ল্যাব স্থাপন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়েও একটি বৈঠক হয়। ওই বৈঠক থেকে পাওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সাতটি ল্যাব চূড়ান্ত করা হয়।

এই সাতটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে স্টেমজ হেলথ কেয়ারে পরীক্ষা করা যাবে দুই হাজার টাকায়। সিএসবিএফ হেলথ সেন্টারে ১৮৫০ টাকায়, এএমজেড হাসপাতালের ল্যাবে ১৮০০ টাকায়, আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে দুই হাজার টাকায়, জয়নুল হক সিকদার ওমেন্স মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ১৭০০ টাকায়, গুলশান ক্লিনিকের ল্যাবে ১৭৫০ টাকায় এবং ডিএমএফের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার খরচ পড়বে দুই হাজার ৩০০ টাকা।

সূত্র জানায়, এদিন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী সব বেসরকারি ল্যাব কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে বসে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। বৈঠকে পিসিআর মেশিন স্থাপনের জন্য আবেদন করা ২৪টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৮টি ল্যাব কর্তৃপক্ষ উপস্থিত ছিলেন। তারা ল্যাব স্থাপনে নিজেদের প্রস্তাবনা ও নমুনা পরীক্ষার খরচ জানায়। একইসঙ্গে দ্রুততম সময়ে ও কত মেশিন দিয়ে নমুনা পরীক্ষা করতে পারবে, সে বিষয়েও তারা জানান অধিদপ্তরকে। পরে অধিদপ্তর বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের জন্য সাতটি প্রতিষ্ঠানকে চূড়ান্ত করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here