চুরির অপবাদে দুই যুবককে নির্যাতন

0
28

ঘাটাইল(টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি:

মোবাইল চুরির অপবাদে টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে দুই যুবককে মধ্যযুগিয় কায়দায় বর্বরোচিত নির্যাতন করা হয়েছে।
ওই যুবক ঘাটাইলের লক্ষিন্দর ইউনিয়নের আবেদ আলী গ্রামের হাসেম আলীর ছেলে রাসেল(২০) ও আবদুর রশিদের ছেলে খাইরুল ইসলাম(২২)।

এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার (৯ জুলাই) দুপুরে ঘর থেকে পঞ্চায়েত বাড়ির প্রয়াত শফিকুল ইসলামের ফোন হারানো যায়। একসময় রাসেল দীর্ঘদিন ওই বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজে নিয়োজিত ছিলো। পঞ্চায়েত শফিকুলের মৃত্যুর দিন যেতে না পারায় চতুর্থ দিন মিলাদ ও দোয়ার আয়োজনের দাওয়াতে যায়। প্রয়াত শফিকু্লের স্ত্রী স্বপ্নার সাথে দেখা করে চলে আসে। পরে ওইদিন দুপুরে রাসেলের দোকানে গিয়ে মোবাইল নিয়েছে কিনা জানতে চাইলে অস্বীকার করলে দোকান থেকে রাসেল ও খাইরুলকে কৌশলে প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে যায়।

পরে ওই এলাকার সানবান্দা বাজারে ও পার্শ্ববতী মধুপুর উপজেলার মহিষমারা পাবলিক স্কুলে নিয়ে দফায় দফায় বেধড়ক মারপিট চালায়। চুরির দায় অস্বীকার করলে অমানুষিক ও বর্বরোচিত নির্যাতন করে হত্যার ভয়-ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি মোবাইলে ভিডিও ধারন করে। রডের আঘাতে খাইরুলের বাঁ পায়ের হাঁড় ফেটে গেছে ও রাসেলের মেরুদণ্ডের হাঁড়ের মারাত্মক আঘাত পেয়েছে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, মৃত দানেজ মিয়ার ছেলে শিবলু মিয়া(৪০), হাবিবুর রহমানের ছেলে ফুয়াদ মিয়ার(৩৫) নেত্রীত্বে ফজলু মিয়ার ছেলে বাহাদুর রহমান লুৎফর(৩৫), বারেক মিয়ার ছেলে রমজান মাষ্টার(৩৪) ও মধুপুরের মহিষমারার ককটেল রুবেলসহ আরো অজ্ঞাত ১০/১২ জন জড়িত রয়েছে।

আহত রাসেল ও খাইরুল জানায়, মোবাইল চুরি করার মিথ্যা অপবাদে তু্লে নিয়ে মারধর করে। মোবাইল ক্যামেরার সামনে স্বীকার না করলে আরো মারতে থাকে ও হত্যার ভয় দেখালে পরে এক পর্যায়ে জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি ভিডিও করে।

অভিযুক্ত ফুয়াদ মিয়া জানায়, মোবাইল চুরি করে রাসেলের দোকান মালিক খাইরুলের কাছে দিয়েছে বলে স্বীকার করেছে। আমাদের কাছে সব প্রমাণ আছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য বাহাদুর মিয়া ঘটনার সত্যতার স্বীকার করে বলেন, চুরির ঘটনায় আমাদের কাউকে জানানোর দরকার মনে না করে নিজেরাই সন্ত্রাসী কায়দায় তুলে নিয়ে মারদর করে। পরে বিষয় টা জানতে পারলাম।

এ ঘটনায় শনিবার রাতে ঘাটাইল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে বলে জানা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here