রেলওয়ে জমি বেদখল প্রতিবেদনে উপজেলা চেয়ারম্যানকে জড়ানোর প্রতিবাদে সৈয়দপুরে সংবাদ সন্মেলন

0
87

মিজানুর রহমান মিলন সৈয়দপুর :
নীলফামারীর সৈয়দপুরে রেলওয়ে জমি বেদখল নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। আজ সোমবার সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে ওই সংবাদ সম্মেলন করেন। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মো. মোখছেদুল মোমিন। তিনি বলেন সৈয়দপুরে রেলওয়ে জমি বেদখল নিয়ে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের একটি তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে গত ১৯ জুন একটি জাতীয় দৈনিকে সৈয়দপুরে দখলের মহোৎসব শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত সংবাদে উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অবৈধভাবে রেলের জমি দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়। এতে রাজনৈতিক ও সামাজিক ভাবে তাঁকে হেয় করা হয়েছে বলে প্রকাশিত ওই সংবাদটি বানোয়াট, অসত্য, কাল্পনিক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত দাবি করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
লিখিত বক্তব্যে তথ্য প্রমাণ উপস্থাপনের মাধ্যমে তাঁর অবস্থান পরিস্কার করে তিনি দাবি করে বলেন বহুতল ভবন নির্মাণ করা তো দুরের কথা তাঁর নিজের নামে রেলওয়ের কোন জমি দখলে নেই। এছাড়া রেলওয়ে জমির ওপর সামসুল হক মেমোরিয়াল একাডেমি ও পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় নির্মাণের বিষয়টি উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় তার বাবা রেলওয়ে শ্রমিক লীগ নেতা মরহুম সামসুল হকের নামে ট্রেড ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের সর্বসম্মতিতে রেলওয়ে শ্রমিক-কর্মচারীদের সন্তানদের পড়াশুনার জন্য একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। ইতোমধ্যে বিদ্যালয়ের নামে রেলওয়ে ওই জমিটি বরাদ্দের আবেদন সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ওই মাত্র ৫০ শতক জমির ওপর স্কুলটি নির্মাণ করা হলেও প্রতিবেদনে বলা হয় দুই একর। যা উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আর সৈয়দপুর পাইলট বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজটি তাঁর জন্মের বহু আগেই রেলওয়ের জমিতে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এছাড়া রেলওয়ে টি-১৪ নম্বর বাংলোটি পৃথক দুইটি ইউনিট রেলওয়ের জনৈক দুইজন কর্মচারী বরাদ্দ নিয়ে বসবাস করেছেন।সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দপুরে রেলওয়ের জমি বেদখল নিয়ে মন্ত্রণালয়ের তদন্ত প্রতিবেদনটি মনগড়া দাবি করে তিনি বলেন এ বিষয়ে আমার কোন বক্তব্য নেওয়া হয়নি। তিনি বলেন, একটি মহল তাঁকে নিয়ে শুরু থেকেই নানা ষড়যন্ত্র করে আসছে। তাঁকে জড়িয়ে প্রকাশিত ওই সংবাদটিও ষড়যন্ত্রের একটি অংশ বলে জানান তিনি।

পরে তিনি সংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র রাফিকা আকতার জাহান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি(ভারপ্রাপ্ত) মো. রফিকুল ইসলাম বাবু ও সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক বক্তব্য রাখেন। এসময় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজমল হোসেন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান মোছা.সানজিদা বেগম লাকি, পৌরসভার প্যানেল মেয়র যথাক্রমে শাহীন হোসেন, আবুল কাশেম সরকার দুলুু, পৌর কাউন্সিলর জোবায়দুর রহমান শাহিন,মোস্তাফিজুর রহমান সরকার মুন্না,আওয়ামীলীগ নেতা ইদ্রিস আলী, প্রভাষক আব্দুল হাফিজ হাপ্পু,প্রভাষক মেহেদি হাসান সুরুজ,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের জিকো আহমেদসহ উপজেলা,পৌর ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও ছাত্রলীগ,যুবলীগ,স্বেচ্ছাসেবক লীগ,কৃষকলীগ,তাঁতীলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here