বিরামপুরে দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘর পেলেন ৩৫০ গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবার

0
38

নয়ন হাসান, বিরামপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি: “আশ্রয়ণের অধিকার শেখ হাসিনার উপহার” এই স্লোগানকে সামনে রেখে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে মুজিববর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক দ্বিতীয় পর্যায়ে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ গৃহ প্রদান অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে গৃহীত আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে মুজিববর্ষে ভুমিহীন ও গৃহহীন জনগোষ্ঠীকে জমিসহ গৃহ নির্মাণের মাধ্যমে ৫৩ হাজার ৩শ ৪০টি পরিবারকে পুনর্বাসন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় বিরামপুরে উপজেলায় খাঁনপুর ইউনিয়নে ২৯৪টি বিনাইল ইউনিয়নে ৩৮টি এবং পলিপ্রয়াগপুর ইউনিয়নে টিকুরীতে ১৮টি ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের লক্ষে গৃহ নির্মাণ করা হয়। পরে ঘর ও জমিসহ আনুষ্ঠানিকভাবে ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবার গুলোর মাঝে জমির দলিল এবং ঘরের চাবী বুঝিয়ে দেন বিরামপুর উপজেলা প্রশাসন।

(২০ জুন) রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ঘরের চাবী ও দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে মুঠোফোন সংযুক্ত ছিলেন বিরামপুরের উত্তরবঙ্গের উন্নয়নের রূপকার দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক (এমপি)। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আলম রাজু,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিমল কুমার সরকার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেজবাউল ইসলাম মন্ডল,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম বানু, উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি শিবেশ কুন্ডু ও নাড়ু গোপাল কুন্ডু, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক মাষ্টার,সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার একেএম ওয়াহেদুন নবী,থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত,উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হবিবর রহমান,বিরামপুর সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ অদৈত্য কুমার অপু, দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর (জিএম) আমজাদ হোসেন,মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ শিশির কুমার সরকার, উপজেলা খাদ্যনিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান,সমাজসেবা কর্মকর্তা রাজুল ইসলাম,একাডেমিক সুপারভাইজার আব্দুস সালাম,প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আকরাম হোসেন প্রমুখ।

ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ গৃহ প্রদান অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যানগ, বীরমুক্তিযোদ্ধাগণ, আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক,বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক ও সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠীর লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

এসময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে দ্বিতীয় পর্যায়ে একযোগে ৫৩ হাজার ৩শত ৪০ টি ভূমিহীনকে ভূমি ও গৃহ নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় বিরামপুরে ৩ শত ৫০ ভূমিহীনকে ২ শতক জমির দলিল এবং ঘরের চাবী হস্তান্তর করা হয়। এসকল ঘরে বিদ্যুৎ ও সুপেয় পানি সরবরাহের বন্দোবস্ত করা হয়েছে। প্রতিটি জমি ও বাড়ির মালিকানা স্বামী-স্ত্রীর যৌথ নামে দেওয়া হয়েছে। দেশের গৃহহীন প্রতিটি মানুষ ঘর না পাওয়া পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here