মেট্রোরেলের ৬ বগি মোংলা বন্দরে: খালাস শুরু

0
65

স্টাফ রিপোটার,বাগেরহাট: জাপান থেকে মেট্রোরেলের ছয়টি বগি নিয়ে প্রথম চালান মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছেছে। মেট্রোরেলের বগি নিয়ে থাইল্যান্ড পতাকাবাহী এমভি এসপিএম ব্যাংকক জাহাজ। বুধবার (৩১ মার্চ) সন্ধ্যায় মোংলা বন্দরের ৭ নম্বর ইয়ার্ড থেকে আমদানীকৃত বগিগুলো খালাসের কাজও শুরু হয়েছে। এর আগে বিকেল চারটায় বগিগুলো নিয়ে মোংলা বন্দরে পৌঁছায় জাপান থেকে ছেড়ে আসা এমভি এসপিএম ব্যাংকক। এসময়, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসাসহ বন্দরের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তা ও মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বিদেশি জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনসিয়েন্ট স্টিমশিপ কোম্পানি লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, ‘‘বুধবার (৩১ মার্চ) বিকালে জাপান থেকে মেট্রোরেলের ছয়টি রেলওয়ে কারের (কোচ) প্রথম চালান মোংলা বন্দরে পৌঁছায়। বন্দরের ৭ নম্বর ইয়ার্ডে খালাস শেষে আমদানীকৃত বগিগুলো ঢাকায় পাঠানো হবে। ‘জাপানের কাওয়াসাকি হেভি ইন্ডাস্ট্রি কোম্পানি লিমিটেড তৈরি মেট্রোরেলের রেলওয়ে কারগুলো ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)-এর কন্ট্রাক্ট প্যাকেজ-০৮ এর আওতায় আমদানি করা হয়েছে। ২০২১-২০২২ সালের মধ্যে এই প্যাকেজের আরও ১৩৮টি রেলওয়ে কার মোংলা বন্দর দিয়ে আমদানী, ছাড়করণ ও পরিবহণ করা হবে।”ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের কন্ট্রাক্ট প্যাকেজ-০৮ এর প্রকল্প ব্যবস্থাপক এবিএম আরিফুর রহমান বলেন, ‘মেট্রোরেলের লাইন-৬ কন্ট্রাক্ট প্যাকেজ-০৮ আওতা-এর জন্য ২৪টি যাত্রীবাহী রেল কোচ আমদানি করা হবে। প্রতিটি কোচে ছয়টি করে বগি থাকবে। ছয়টি বগির একটি প্যাকেজে ভ্যাট-ট্যাক্সসহ প্রায় একশ’ কোটি টাকা ব্যয় হবে। আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। আবহাওয়া ও করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এখন থেকে প্রতিমাসে একটি করে কোচের জন্য ছয়টি করে বগি মোংলা বন্দরে পৌঁছাবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘মোংলা বন্দরে প্রথম চালানে আসা এই ছয়টি বগি খালাস শেষে নদী পথে ঢাকার তুরাগ নদীর তীরে অবস্থিত আমাদের নিজস্ব জেটিতে নেওয়া হবে। সেখান থেকে উত্তরায় আমাদের প্রকল্পের নির্ধারিত স্থানে নেওয়া হবে।’

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ‌্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, ‘গত কয়েক বছরে মোংলা বন্দরের সংক্ষমতা কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। আপনারা দেখেছেন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের চুল্লিসহ মূল্যবান যন্ত্রাংশ মোংলা বন্দর দিয়ে এসেছে। আজকে বাংলাদেশের মানুষের জন্য প্রথমবারের মত নির্মিতব্য মেট্রোরেলের রেলওয়ে কারের প্রথম চালান মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছেছে। আশাকরি ভবিষ্যতে সরকার মোংলা বন্দরের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ মালামাল আনবে। মোংলা বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ইনারবার ড্রেজিংসহ অনেক কাজ চলমান রয়েছে। এসব কাজ শেষ হলে বন্দরের সক্ষমতা আরও বৃদ্ধি পাবে।’ তিনি বলেন, মেট্রোরেলের (রেলওয়ে কার) ছয়টি বগি নিয়ে আসা এটাই প্রথম চালান। এরপর ধীরে ধীরে আরও ১৩৮টি বগি এ বন্দর দিয়ে খালাস হবে। এগুলো নদীপথে ঢাকায় যাবে।
মেট্রোরেলের বগি নিয়ে আসা বিদেশি এ জাহাজের স্থানীয় এজেন্ট এনসিয়েন্ট স্টিমশিপ কোম্পানি লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মো. ওহিউদুজ্জামন বলেন, ‘রেলওয়ে কারগুলো জাপানের কাওয়াসাতি হ্যাভি ইন্ডাস্ট্রি কোম্পানি লিমিটেড তৈরি করেছে। ২০২২ সালের মধ্যে ঢাকার মেট্রোরেলের সব যন্ত্রাংশ চলে আসবে।‘

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল) জানিয়েছে, ৪ মার্চ বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় মেট্রো ট্রেনসেট বহনকারী জাহাজটি জাপানের কোবে বন্দর থেকে মোংলা সমুদ্রবন্দরের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল। মেট্রো ট্রেনসেটটির ছয়টি যাত্রীবাহী কোচের মধ্যে আজ প্রথম দুটি কোচ মূল জাহাজ এসপিএম ব্যাংকক থেকে উত্তরায় আনয়নকারী বার্জে স্থানান্তর করা হবে। বাকি চারটি কোচের বার্জে স্থানান্তর কাজ বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) সম্পন্ন হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here