গণপরিবহনে দুর্ভোগ: ধৈর্য ধরতে বললেন কাদের

0
32

খবর৭১ঃ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে গণপরিবহনে যাত্রী সংখ্যা সীমিত করার সিদ্ধান্তের পর রাজধানীতে বাস সঙ্কট ও ভাড়া নিয়ে যাত্রীদের যে ভোগান্তি ও ক্ষোভ চলছে এমন পরিস্থিতিতে সবাইকে ধৈর্য ধরার পরামর্শ দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

জনস্বার্থেই অর্ধেক আসন খালি রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলছে উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘এ পরিস্থিতিতে অস্থিরতা প্রদর্শন না করে নিজেদের সুরক্ষার স্বার্থে অর্ধেক আসন খালি রেখে চলাচলের সিদ্ধান্ত মেনে চলার জন্য সকলকে ধৈর্য ধরতে হবে।’

ওবায়দুল কাদের আজ বৃহস্পতিবার বিকালে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে সরকার ১৮ দফা নির্দেশনা জারি করার পর বুধবার থেকে অর্ধেক আসন খালি রেখে গণপরিবহন চালানোর সিদ্ধান্ত হয়। গতকাল থেকে রাজধানীতে চলাচল করা বাসগুলো অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে। সরকারি নির্দেশনা পাওয়ার পর অর্ধেক আসন খালি রেখে ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়িয়ে সেগুলোর যাত্রী পরিবহন করার কথা থাকলেও অনেক বাসে সেগুলো মানা হয়নি। এছাড়া অফিস-আদালত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রেখে বাসে কম যাত্রী পরিবহনের এ নির্দেশনায় বিপাকে পড়েছে রাজধানীবাসী।

অফিসগামী যাত্রীরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকেও বাসে উঠতে না পেরে প্রতিবাদ জানাতে সকালে খিলক্ষেতে রাস্তা অবরোধ করলে পুরো বিমানবন্দর সড়কে যানবাহনের দীর্ঘজট সৃষ্টি হয়। এমন পরিস্থিতিতে সবাইকে ধৈর্য করার আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, করোনা সংক্রমণের চলমান প্রেক্ষাপটে সরকার জনস্বার্থে শর্তসাপেক্ষে গণপরিবহনের ভাড়া সমন্বয় করছে। অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে অনেকে সরকারি নির্দেশনা মেনে চললেও আবার অনেকেই মানছে না। অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করারও অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। এ বিষয়ে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের অর্ধেক আসন খালি রেখে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সমন্বয় করা ভাড়ায় গণপরিবহন চালনার আহ্বান জানান তিনি।

অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারী এবং নির্দেশনা প্রতিপালনে ব্যর্থ পরিবহনের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহণ করার জন্য বিআরটিএ এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলেও জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

গণপরিবহন যেন নতুন করে করোনা সংক্রমণের ক্ষেত্র হিসেবে বিস্তৃতি ঘটাতে না পারে সেদিকে সবাইকে নজর দেয়ারও আহ্বান জানান মন্ত্রী।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জনস্বার্থেই অর্ধেক আসন খালি রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলছে। এমন পরিস্থিতিতে অস্থিরতা প্রদর্শন না করে নিজেদের সুরক্ষার স্বার্থে অর্ধেক আসন খালি রেখে চলাচলের সিদ্ধান্ত মেনে চলার জন্য সকলকে ধৈর্য ধরনের আহ্বান জানান তিনি।

ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপিকে নিয়েও কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের অব্যাহত অগ্রযাত্রায় নিজেদের সম্পৃক্ত না করে অবিরাম মিথ্যাচার আর চলার পথে বাধা সৃষ্টির অপকৌশল গ্রহণ করেছে বিএনপি। বিএনপি শেখ হাসিনা সরকারের বিরোধিতা করতে গিয়ে রাষ্ট্রের বিরোধিতা করছে।

নানা ঘাত-প্রতিঘাত মোকাবেলা করে শেখ হাসিনা সরকার দেশের গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে মন্তব্য করেন কাদের।

‘কিন্তু বিএনপি গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার প্রতিটি পদক্ষেপ তাদের স্বভাবজাত নেতিবাচক রাজনীতি দিয়ে বিনষ্ট করছে। মিথ্যাবাদি রাখালের মত বিএনপির কথা জনগণ এখন আর বিশ্বাস করে না।’-যোগ করে আওয়ামী লীগের এই নেতা।

সরকার নাকি জুলুম করছে-বিএনপি মহাসচিবের এমন অভিযোগ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রকৃতপক্ষে সরকার নয়, আন্দোলনের নামে বিএনপিই মানুষের প্রাণ এবং সম্পদহানি ঘটিয়ে জুলুম-অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে।

এ দেশে রাজনৈতিক মুখোশের আড়ালে জুলুমতন্ত্র কায়েম করেছিল বিএনপি এমন মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

স্বাধীনতাবিরোধী উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তিকে নিয়ে বিএনপি আবারও নৈরাজ্য তৈরির অপপ্রয়াস চালাচ্ছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এসব অপকৌশল করে ক্ষমতায় যাওয়া যাবে না। ক্ষমতায় যেতে হলে জনগণের রাজনীতি করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here