সাকিবকে হত্যার হুমকি: হাইকোর্টের উষ্মা প্রকাশ

0
116

খবর ৭১: ২০২০ সালের ১৫ নভেম্বর রাত ১২টা ৭ মিনিটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুক লাইভে এসে চাপাতি দেখিয়ে সাকিবকে গলাকেটে হত্যার হুমকি দেয় মহসীন তালুকদার নামের যুবক। কলকাতায় গিয়ে কালীপূজার অনুষ্ঠান উদ্বোধন করার অভিযোগ তুলে ক্রিকেট তারকাকে এ হুমকি দেওয়া হয়। পরে গত ১৭ নভেম্বর তাকে গ্রেফতার করা হয়। কলকাতায় গিয়ে কালীপূজার অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ায় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে হত্যার হুমকির ঘটনায় উষ্মা প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, একজন বিশ্বমানের ক্রিকেটার কালিপূজায় নাকি মসজিদে যাবে, এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। এজন্য তো তাকে হত্যার হুমকি দিতে পারে না। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন।

হুমকিদাতা মহসীন তালুকদার সিলেট সদর উপজেলার টুকেরবাজার ইউনিয়নের তালুকদার পাড়া গ্রামের আজাদ বক্সের ছেলে। এই ঘটনায় যবককে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সাকিবকে হত্যার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার আসামির জামিন আবেদনের শুনানিকালে

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মোহাম্মদ বশির উল্লাহ।

একইসঙ্গে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে হত্যার হুমকির ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আসামি মহসীন তালুকদারকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েও রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। মামলার বিবাদীদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এর আগে ফেসবুক লাইভে সাকিব আল হাসানকে হত্যার হুমকি দেওয়া ছাড়াও তাকে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের অনুসরণ করার পরামর্শ দিয়ে মহসীন তালুকদার নামের ওই ব্যক্তি গালিগালাজ করে। সেলফি তোলা নিয়ে ভক্তদের সঙ্গে সাকিব আল হাসানের খারাপ আচরণেল প্রসঙ্গ তুলেও গালিগালাজ করে সে। তবে ১৬ নভেম্বর সকালে ফের লাইভে এসে আগের লাইভের কথাগুলোর জন্য দুঃখ প্রকাশ করে মহসীন তালুকদার।

প্রসঙ্গত, গত ১২ নভেম্বর কলকাতায় গিয়ে একটি কালীপূজার অনুষ্ঠানে যান সাকিব আল হাসান। পূর্ব কলকাতার কাঁকুড়গাছিতে ‘আমরা সবাই ক্লাব’র ৫৯ তম শ্যামাপূজার অনুষ্ঠানে তিনি শুধু উপস্থিত ছিলেন, পূজা উদ্বোধন করেননি বলে জানান আয়োজকরা। ওই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, ‘আমরা সবাই ক্লাব’ এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক পরেশ পাল, দক্ষিণেশ্বর আদ্যাপীঠের আচার্য মুরাল ভাই, কলকাতায় বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের উপদূতাবাস তৌফিক হাসান, দূতাবাস প্রধান কনসুলার বি এম জামাল হোসেন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here