শাহবাগে গ্রেপ্তার সাতজনের বিরুদ্ধে ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা

0
31
শাহবাগে মশাল মিছিলে পুলিশের বাধা, সংঘর্ষ

খবর৭১ঃ
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কারাবন্দী লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় রাজধানীর শাহবাগে বিক্ষোভের সময় আটক সাতজনের বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগ এনে ‘হত্যাচেষ্টা’র মামলা হয়েছে।

শাহবাগ থানায় দায়ের করা এ মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও ১০০ থেকে ১৫০ জনকে আসামি করেছে পুলিশ।

শনিবার বিকালে শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক আল মোমিন ঢাকাটাইমসকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গতকাল শুক্রবার রাতে শাহবাগ থানায় মামলা করা হয়েছে। মামলার বাদী শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মিন্টু মিয়া। মামলা নম্বর- ৩৪। তারিখ ২৭.০২.২১ ইং।

মামলার এজহারে বলা হয়েছে, ‘আসামিরা বেআইনি জনতাবদ্ধে পরস্পর যোগসাজশে পূর্বপরিকল্পিতভাবে লাঠিসোঁটা, ইটপাটকেলসহ পুলিশের কর্তব্যকাজে বাধা প্রদান করত হত্যার উদ্দেশে আক্রমণ করে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। মিছিলকারীরা মশাল দিয়ে পুলিশের ওপর হামলা করে।’

শাহবাগ মোড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মশালমিছিল করার সময় গতকাল সন্ধ্যায় পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে ওই সাতজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

নয় মাস আগে গ্রেপ্তার হওয়া মুশতাক আহমেদ কারাগারে বন্দী অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার মারা যান। এ ঘটনায় লেখক, সাংবাদিক, শিক্ষার্থী এবং ছাত্রসংগঠনের কর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এর ধারাবাহিকতায় গতকাল সন্ধ্যার দিকে জাতীয় জাদুঘর, প্রেসক্লাব এলাকা এবং শাহবাগে বিভিন্ন ছাত্রসংগঠনের নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ সমাবেশ ও মশালমিছিল বের করলে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে। এসময় সাতজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া সাতজন হলেন- নারায়ণগঞ্জের তামজিদ হায়দার, কিশোরগঞ্জের নজির আমিন চৌধুরী জয়, নোয়াখালীর এ এস এম তানজিমুর রহমান, মেহেরপুরের মো. আকিব আহম্মেদ (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুহসীন হলের আবাসিক ছাত্র), বরিশালের মো. আরাফাত সাদ, লক্ষ্মীপুরের নাজিফা জান্নাত ও পটুয়াখালীর জয়তী চক্রবর্তী।

শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মিন্টু মিয়ার করা মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, পুলিশের একজন সদস্যের বুলেটপ্রুফ পোশাকে আগুন ধরে যায় বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। শাহবাগ থানার পুলিশ পরিদর্শকসহ ১৫ জন পুলিশ সদস্য আহত হন বলেও এজাহারে জানানো হয়েছে।

শনিবার বিকালে গ্রেপ্তারকৃতদের ঢাকা মহানগর মূখ্য হাকিম আদালতে তোলা হয়েছে জানিয়েছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here