বাবা-ছেলে মিলে ধর্ষণের পর তরুণীর গায়ে আগুন

0
69
বাবা-ছেলে মিলে ধর্ষণ

খবর৭১ঃ ভারতের উত্তরপ্রদেশের সীতাপুরের মিশরিখে জঙ্গল থেকে আগুনের লেলিহান শিখা দেখতে পেয়ে ছুটে আসেন স্থানীয় মানুষজন। স্থানীয়দের চেষ্টায় আগুন নেভানো হয়। তাদের থেকে খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় মানুষজনের চেষ্টায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সন্ধ্যায় বাপের বাড়ি ফেরার পথে ওই তরুণীর জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। পথে একজন ভ্যান চালককে দেখতে পেয়ে সাহায্য চান। আর তারপরই বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার নাম করে পথের ধারে জঙ্গলের ভিতর জোর করে টেনে হিঁচরে নিয়ে গিয়ে তার ওপর পাশবিক অত্যাচার চালায় ভ্যানচালক ও তার ছেলে। ধর্ষণের পর ওই তরুণীকে পুরোপুরি প্রাণে মেরে ফেলার জন্য আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়।

নির্যাতিতাকে ওই অবস্থায় রেখে পালিয়ে যায় ভ্যানচালক ও তার ছেলে। জঙ্গল থেকে আগুনের লেলিহান শিখা দেখতে পেয়ে ছুটে আসেন স্থানীয় মানুষজন। স্থানীয়দের চেষ্টায় আগুন নেভানো হয়। তাদের থেকে খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় মানুষজনের চেষ্টায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তে নেমে পুলিশ ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত ভ্যানচালক ও তার ছেলেকে গ্রেফতার করেছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ, খুনের চেষ্টা–সহ একাধিক ধারায় মামলা হয়েছে। এই ঘটনায় আরও কেউ যুক্ত রয়েছেন কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। নৃশংস এই ঘটনার জেরে এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে গভীর চাঞ্চল্য। বর্তমানে নির্যাতিতা ওই তরুণী হাসপাতালে ভর্তি। শরীরের ৩০ শতাংশ পুড়ে গেলেও আপাতত তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। এই ঘটনায় দোষীর বিরুদ্ধে কঠোরতর শাস্তির দাবিতে পথে নেমেছেন সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বিশিষ্টজনেরাও। সূত্র: আজকাল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here