করোনায় মৃত্যু বেড়ে ৭৫৩১, নতুন শনাক্ত ১২৩৫

0
48
আসছে নতুন করোনা ভাইরাস

খবর৭১ঃ চীনের উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত হাজার ৫৩১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১২৩৫ জনের শরীরে। এ নিয়ে মোট পাঁচ লাখ ১২ হাজার ৪৯৬ জন শনাক্ত হলো।

বুধবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানানো হয়।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১৫০৭ জন। তাদের নিয়ে সুস্থতার মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৫৬ হাজার ৭০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮০টি ল্যাবরেটরিতে ১৫ হাজার ৪০৮টি নমুনা সংগ্রহ ও ১৫ হাজার ২২৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৩২ লাখ ১৪ হাজার ৩৪৪টি। এ সময়ে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও এক হাজার ২৩৫ জন। দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচ লাখ ১২ হাজার ৪৯৬ জনে।

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৫০৭ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৫৬ হাজার ৭০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ৮ দশমিক শূন্য ১১ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৯৪ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৮ দশমিক ৯৯ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৭ শতাংশ।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ২২ জনের মধ্যে ত্রিশোর্ধ্ব একজন, চল্লিশোর্ধ্ব চারজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব ছয়জন এবং ষাটোর্ধ্ব ১১ জন রয়েছেন। বিভাগ হিসেবে মৃতদের মধ্যে ঢাকায় ১১ জন, চট্টগ্রামে পাঁচজন, রাজশাহীতে একজন, খুলনায় একজন, বরিশালে একজন, সিলেটে একজন এবং ময়মনসিংহে দু’জন রয়েছেন।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার দেশে আরও ১ হাজার ১৮১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে মারা যান আরও ৩০ জন।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহানে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। পরে এই ভাইরাসটি সারা বিশ্বকে গ্রাস করে। বাংলাদেশে ৮ মার্চ প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। আর মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ।

করোনাভাইরাসে বিশ্বের ২১৫টি দেশ ও অঞ্চলে এখন পর্যন্ত ৮ কোটি ২৩ লাখ ২১ হাজার ৩৫৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ১৭ লাখ ৯৬ হাজার ২৬৯ জন। আক্রান্তেদের মধ্যে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৫ কোটি ৮৩ লাখ ৩১ হাজার ২৯৮ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here