ঝিনাইদহের ভাষা সৈনিক জাহিদ হোসেন মুসা মিয়া চিরবিদায় নিলেন

0
60
ঝিনাইদহের ভাষা সৈনিক জাহিদ হোসেন মুসা মিয়া চিরবিদায় নিলেন

খবর৭১ঃ

রাব্বুল ইসলাম, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ হাজারো মানুষের ভালোবাসায় চিরবিদায় নিলেন ভাষা সৈনিক, বিশিষ্ট সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী মোঃ জাহিদ হোসেন মুসা মিয়া। বুধবার বাদ যোহর ঝিনাইদহ কেন্দ্রীয় ওয়াজীর আলী হাই স্কুল এন্ড কলেজ ঈদগাহ ময়দান মাঠে তার জানাযা সম্পন্ন হয়।

কানায় কানায় পরিপূর্ণ মাঠে জাহিদ হোসেন মুসা মিয়ার জৈষ্ঠ পুত্র ও জাহেদী ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ও রেডিয়েন্ট ফার্মাসিউটিক্যালস্ এর চেয়ারম্যান নাসের শাহরিয়ার জাহেদী মহুল দুঃখ ভারাক্রান্ত মনে বক্তব্য রাখেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার সাইদ, পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু বিএনপির সাবেক সাংসদ মশিউর রহমান, সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মিজানুর রহমানসহ বিভিন্ন সংগঠন, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিকসহ নানা শ্রেণী পেশার হাজার হাজার মানুষ জানাযায় অংশগ্রহন করেন। এর আগে মরহুম জাহিদ হোসেন মুসা মিয়াকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলী ও পুষ্পমাল্য অর্পণ করে বিভিন্ন সংগঠন ও নানা শ্রেণী পেশার মানুষ। ভাষা সৈনিক, বিশিষ্ট সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী মোঃ জাহিদ হোসেন মুসা মিয়ার মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে বার্ধক্যজনিত কারণে তিনি ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৬ ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

জানাযা শেষে আজ বিকেলে পৌর এলাকার মুসা মিয়া সড়কস্থ মহিষাকুন্ডু গ্রামের পারিবারিক কররস্থানে তাকে দাফন করা হয়। আরো জানা যায়, তিনি ছিলেন জাহেদী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান। সমাজসেবক মুসা মিয়া ছিলেন বর্নাঢ্য জীবনের অধিকারী। দেশ স্বাধীনের আগ থেকেই তিনি সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মে জড়িয়ে পড়েন। ঝিনাইদহ, যশোরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার এবং তার পরিবারের শিক্ষা বিস্তারে রয়েছে অসামান্য অবদান।

মসজিদ, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও স্বাস্থ্য সেবায় জাহেদী ফাউন্ডেশনের অবদান স্মরনীয় হয়ে থাকবে। এদিকে মুসা মিয়া মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে জেলা শহরে শোকের ছায়া নেমে আসে। বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা জাহিদ হোসেন মুসা মিয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here