বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধের পাঁচ ধরনের তথ্য জানালে মিলবে পুরস্কার

0
55
বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধের পাঁচ ধরনের তথ্য জানালে মিলবে পুরস্কার

খবর৭১ঃ বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধের পাঁচ ধরনের তথ্য সরকারকে জানালে পুরস্কার মিলবে। আট থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত পুরস্কার পাবেন তথ্যদাতা। এ জন্য ‘বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধ উদ্ঘাটনে (তথ্য প্রদানকারী) পুরস্কার প্রদান বিধিমালা-২০২০’ জারি করেছে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়।

বিধিমালায় বলা হয়েছে– এসব পুরস্কার দিতে প্রধান বন সংরক্ষকের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি থাকবে। এই কমিটি আর্থিক পুরস্কারের জন্য প্রস্তুত করা তালিকা পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত দেবে।

অপরাধ উদ্ঘাটনে তথ্য অনুসন্ধান চলাকালীন বন কর্মকর্তা তথ্য প্রদানকারীর পরিচয়সহ সব তথ্যের গোপনীয়তা বজায় রাখবেন।

বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধের পাঁচ ধরনের তথ্যগুলো হলো-

১. বাঘ, কুমির বা হাতি, হরিণ, কচ্ছপ বা সাপ এবং পাখি বা অন্যান্য বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধ বিষয়ে তথ্য দিয়ে এ পুরস্কার জেতা যাবে।

২. অপরাধে জড়িত ব্যক্তি বা বাঘসহ কোনো ব্যক্তিকে বনাঞ্চলের ভেতরে ধরার ক্ষেত্রে তথ্যের জন্য ৫০ হাজার টাকা এবং বনাঞ্চলের বাইরের এই তথ্যের জন্য ২৫ হাজার টাকা পুরস্কার দেয়া হবে।

৩. কুমির ও হাতির ক্ষেত্রে আসামি ও প্রাণীসহ বনাঞ্চলের অভ্যন্তরের তথ্যের জন্য ৩০ হাজার টাকা এবং আসামি ও প্রাণীসহ বনাঞ্চলের বাইরের এই তথ্য জানিয়ে ১৫ হাজার টাকা পুরস্কার পাওয়া যাবে।

৪. হরিণ সংক্রান্ত অপরাধে বনের ভেতরের তথ্য দিলে ২০ হাজার টাকা এবং বনের বাইরের তথ্যের জন্য ১০ হাজার টাকা পুরস্কার পাওয়া যাবে।

৫. আর কচ্ছপ বা সাপ নিয়ে বনের ভেতরের অপরাধ সংক্রান্ত তথ্য দিলে ১৫ হাজার টাকা এবং বনের বাইরের তথ্য দিলে ১০ হাজার টাকা পুরস্কার দেয়া হবে।

এ ছাড়া পাখি ও অন্যান্য বন্যপ্রাণীর ক্ষেত্রে বনের ভেতরে অপরাধ উদ্ঘাটনে তথ্য দিয়ে ১০ হাজার টাকা এবং বনের বাইরের তথ্য জানিয়ে আট হাজার টাকা পুরস্কার পাওয়া যাবে।

বিধিমালা অনুযায়ী, প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে অনুসন্ধান করে বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধ উদ্ঘাটন করা সম্ভব হলে তথ্যদাতাকে আর্থিক পুরস্কার দেয়া যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here