সৈয়দপুরে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন, স্ত্রী জেলহাজতে

0
71
সৈয়দপুরে স্বামীকে হত্যার অভিযোগে শশুর ও দেবরের বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা

মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুরপ্রতিনিধিঃ নীলফামারীর সৈয়দপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে পাষন্ড স্ত্রী তাঁর স্বামীর পুরুষাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে দিয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) ভোর বেলা শহরের উপকণ্ঠ উত্তরা আবাসন এলাকার বিহারি পট্টিতে এ ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বামী নাসিম মিয়া (৩০) রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় নাসিমের বিমাতা বড় বোন মুক্তা সৈয়দপুর থানায় মামলা করেছে। মামলার আগেই পুলিশের হাতে আটক স্ত্রী রুমা খাতুনকে গ্রেফতার দেখিয়ে পুলিশ আদালতের মাধ্যমে নীলফামারী জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

মামলার আরজিতে বলা হয়, সৈয়দপুর শহরের ঢেলাপীর উত্তরা আবাসন এলাকার বিহারি পট্টির মৃত. হাফিজ মিয়ার ছেলে ভাঙ্গারি (পুরাতন-মালামাল) ব্যবসায়ী মো. নাসিমের (৩০) সাথে প্রায় তিন বছর আগে একই আবাসনের শরিফুলের মেয়ে রুমা খাতুনের (২৪) বিয়ে হয়। ওই দম্পতির ঘরে দেড়বছর বয়সের নিশফা নামের এক কন্যা রয়েছে। তিনি পেশাগত কারণে নীলফামারীর জলঢাকায় অবস্থান করেন। গত ৪ নভেম্বর তাঁর মায়ের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে সৈয়দপুরে আসেন নাসিম মিয়া। তখন থেকে তিনি ঢেলাপীর উত্তরা আবাসনের ৬১/১ নং ব্লকের বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। আর এরই মধ্যে স্বামী নাসিমের সঙ্গে তাঁর স্ত্রী রুমা খাতুনের পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। ঘটনার দিন গতকাল সোমবার রাতে স্বামী নাসিম ও স্ত্রী রুমা রাতের খাওয়া খেয়ে ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। আজ মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে পাষন্ড স্ত্রী রুমা খাতুন পারিবারিক কলহের জেরে পুর্ব পরিকল্পনায় তাঁর ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ ধারালো ব্লেড দিয়ে কেটে দেয়।

এ ঘটনার পর মারাত্মক আহত অবস্থায় নাসিম দ্রুত ঘর থেকে বের হয়ে চিৎকার করে উত্তরা আবাসনের ৬১ নং ব্লকে বসবাসকরা তাঁর বিমাতা বড় বোন মুক্তার কাছে ছুঁটে যায়। এ সময় তাঁর বোনসহ অাশেপাশের লোকজন তাঁর পরণের প্যান্ট রক্তাক্ত দেখতে পেয়ে তাকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি ঘটনার বিষয়ে সব খুলে বলেন। পরে প্রতিবেশিদের সহযোগিতায় গুরুতর আহত অবস্থায় নাসিমকে অটো রিকশায় ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁর অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। বর্তমানে তিনি রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় নাসিমের বড় বোন উত্তরা আবাসনের বাসিন্দা মুক্তা বেগম বাদী হয়ে সৈয়দপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। এ মামলায় সৈয়দপুর থানা পুলিশ নাসিমের স্ত্রী রুমা খাতুনকে গ্রেফতার করেন। আজ মঙ্গলবার গ্রেফতারকৃত রুমা খাতুনকে আদালতের মাধ্যমে নীলফামারী জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল হাসনাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, পারিবারিক কলহের কারণে রুমা খাতুন তাঁর স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে বলে স্বীকার করেন। তবে স্ত্রী রুমা পরকীয়ায় পড়ে এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here