শেরপুরের শ্রীবরদীতে তক্ষক উদ্ধারঃ আ’লীগ নেতা সহ ৫ প্রতারক আটক

0
63
শেরপুরে যৌতুকের দাবিতে পিটিয়ে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ, আটক ৩

শেরপুর থেকে আবু হানিফ :
শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার সিংগাবরুনা ইউনিয়নের মাটিফাটা গ্রাম থেকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক খালিদ হাসান হেপুলের বাড়ী থেকে একটি তক্ষক সহ ৫ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত হেপুল মাটিফাটা গ্রামের বাছির উদ্দীনের ছেলে।

জানা যায়, রোববার রাতে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ শ্রীবরদী ও বকশীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ প্রতারক সহ ৮ জন কে আটক করা হয়। আটককৃতদের বিরুদ্ধে প্রতারনা ও বন্যপ্রাণী আইনে মামলা হয়েছে। সোমবার সকালে তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো শেরপুর জেলার শ্রীবরদী উপজেলার তরমুছ পাড়া এলাকার সাইদুর রহমানের ছেলে শামছুর রহমান সুমন (৪০), নবীনপুর এলাকার আবুল হাশেমের ছেলে নুর আলম (৩৮), কর্নঝোড়া এলাকার আজিজুর রহমানের ছেলে আল আমিন (৩৮), সুলতান মাহমুদের ছেলে আবদুল হালিম (৩০), শ্রীবরদী মুন্সিপাড়া এলাকার সৈয়দুর রহমানের ছেলে জিয়ার আলী (৪৫), মাটিফাটা এলাকার বাছির উদ্দিনের ছেলে খালিদ হাসান ওরফে হিপুল (৪৮), বকশীগঞ্জ উপজেলার যদুরচর এলাকার সিরাজুল হকের ছেলে হাসান তারেক ওরফে বিপ্লব (৪২) ও দাড়িপুরা এলাকার আবদুল খালেকের ছেলে আবজাল শরিফ (৩৮)। এলাকাবাসী জানায়, হেপুলের নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ দীর্ঘদিন যাবত পিলার, তক্ষক, স্বর্ণের সাবান, হুতুম পেচা সহ বিভিন্ন পণ্য বিক্রির প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন এলাকার মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছিল। তাদের অভিনব প্রতারণার শিকার হয়ে অনেকেই নি:শ্ব হয়ে গেছে। স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, এই প্রতারক চক্রের সাথে রাজধানী ঢাকার শীর্ষ প্রতারক চক্রদের সখ্যতা রয়েছে।

এ কারনেই প্রায় সময়েই সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে লোকজন এসে প্রতারকদের সাথে দেখা করে যেত। বকশীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মোঃ আকরাম হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার সন্ধায় বকশীগঞ্জ পৌরশহরের আলিবাবা হোটেলের সামনে থেকে এই চক্রের মূল হোতা শামছুর রহমান, নুর আলম ও তারেক রহমান ওরফে বিপ্লবকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্যমতে রাতেই শ্রীবরদীর মাটিফাটা এলাকায় হাসান ওরফে হিপুল মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি তক্ষক উদ্ধারসহ ওই চক্রের আরো ৫ জনকে আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে বকশীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শফিকুল ইসলাম স¤্রাট বলেন, আটককৃতদের বিরুদ্ধে প্রতারনা ও বন্যপ্রাণী আইনে মামলা হয়েছে। সোমবার তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। আদালতের অনুমতি সাপেক্ষে উদ্ধারকৃত তক্ষকটি বনবিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here