তদন্তে ওসি প্রদীপের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে

0
54
সিনহা হত্যার পরদিন ঢাকার এক নেতাকেও ফোন করেন প্রদীপ

খবর৭১ঃ
কক্সবাজারের টেকনাফে মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় প্রশাসনিক তদন্ত কমিটি গতকাল সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিয়েছে। ৮০ পৃষ্ঠার রিপোর্টের বিস্তারিত জানা না গেলেও তদন্তসংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তা ইত্তেফাককে নিশ্চিত করেছেন, তাদের তদন্তে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাসের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে। কমিটি মসজিদের ইমাম-মুয়াজ্জিন-গ্রামবাসী ও অভিযুক্ত পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট ৬৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেছে।

কয়েক দিন আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে কমিটির প্রধান অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মিজানুর রহমান বলেছেন, কমিটির কাছে দেওয়া সিংহভাগ বক্তব্যে উঠে এসেছে ওসি প্রদীপ সিনহা হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। গতকাল সোমবার দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের হাতে প্রতিবেদন জমা দেন কমিটির প্রধান মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন কমিটির সদস্য সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রতিনিধি সেনাবাহিনীর লে. কর্নেল এস এম সাজ্জাদ হোসেন। ৮০ পৃষ্ঠার মূল প্রতিবেদনের সঙ্গে ৫৮৬ পৃষ্ঠার সংযুক্তিও জমা দেওয়া হয়। ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা এড়াতে প্রতিবেদনে ১৩টি সুপারিশ করেছে এ কমিটি। ওসি প্রদীপ ছাড়াও কক্সবাজার এলাকার তত্কালীন পুলিশের কয়েক জন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এ ঘটনাকে ভিন্ন খাতে নেওয়ার অপচেষ্টা চালিয়েছেন। এ বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছে তদন্ত কমিটি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ারও সুপারিশ করেছেন তারা।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে তদন্ত প্রতিবেদন সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বলেন, তদন্ত কমিটি প্রতিবেদনে কয়েকটি সুপারিশ করেছেন। সেগুলো বাস্তবায়ন করা হবে। তিনি বলেন, আমাদের সচিব প্রতিবেদনটি বিশ্লেষণ করে দেখবেন।

‘মেজর সিনহা হত্যার ঘটনা পুলিশের ভূমিকাকে ম্লান করবে না’

মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ডের ঘটনা পুলিশের ভূমিকাকে ম্লান করবে না বলে মন্তব্য করেছেন তদন্ত কমিটির প্রধান চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। তদন্ত প্রতিবেদন হস্তান্তরের পর তিনি বলেন, আমরা চার জন কমিটির সদস্য এক মাসের বেশি সময় ধরে যে রিপোর্টটি প্রণয়ন করেছি, সেটি হস্তান্তর করতে পেরেছি। আমাদের পুলিশ বাহিনী যে আইনশৃঙ্খলার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে, এই ঘটনাটি (সিনহা হত্যা) কোনোভাবেই তাদের ভূমিকাকে ম্লান করবে না।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত আলীর গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here