কর্মহীন পরিবারের মাঝে সঠিক পরিমানে খাদ্য দিতে ডিজিটাল পাল্লায় নিজে ওজন করছেন ইউপি চেয়ারম্যান

0
255
কর্মহীন পরিবারের মাঝে সঠিক পরিমানে খাদ্য দিতে ডিজিটাল পাল্লায় নিজে ওজন করছেন ইউপি চেয়ারম্যান

মিজানুর রহমান মিলন সৈয়দপুর প্রতিনিধি :

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষজনের মাঝে সঠিক পরিমানে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের জন্য ডিজিটাল পাল্লার সামনে বসেছেন ইউপি চেয়ারম্যান । তিনি নিজেই ওজন করে খাদ্য সামগ্রী প্যাকেট করছেন। ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে ওই কার্যক্রম শুরু করেছেন সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মে. আল হেলাল চৌধুরী। সুত্র জানায়, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে সরকার জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে সারাদেশে কর্মহীন অসহায় মানুষজনের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছে। কিন্তু খাদ্য সামগ্রী বিতরণে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ ওঠে বিভিন্ন এলাকায়। সৈয়দপুরেও খাদ্য সামগ্রী বিতরণে প্রশ্ন ওঠে। ফলে জনপ্রশ্ন এড়িয়ে স্বচ্ছতার সাথে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের জন্য বোতলাগাড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আল হেলাল চৌধুরী এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার সকালে ওই ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে দেখা যায় একপাশে চাল ,অপর পাশে ডালের বস্তা। একদিকে সাজানো রয়েছে আলুর বস্তা।
আর ওই কক্ষের এক কোণায় দেখা যায় ইউপি চেয়ারম্যান হেলাল চৌধুরী চেয়ারে বসে ডিজিটাল পরিমাপক যন্ত্রের মাধ্যমে চাল, আলু ও ডাল ওজন করছেন। এ কাজে তাঁকে সহযোগিতা করছেন ইউনিয়ন পরিষদেরর সদস্য ও গ্রাম পুলিশ। এসব পণ্য ওজনের পর প্যাকেট করছেন অন্যান্যরা।
এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আল হেলাল চৌধুরীর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, অনেক এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণে নানা প্রশ্ন উঠেছে। তাই সকল প্রশ্নের উর্ধ্বে থেকে সঠিক পরিমাণে খাদ্য পণ্য ওজন করে স্বচ্ছতার সাথে সরকারের দেয়া এসব খাদ্য সামগ্রী কর্মহীন অসহায় পরিবারের মাঝে বিতরণের জন্য এ কাজ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন,এ পর্যন্ত তাঁর ইউনিয়নে কয়েক দফায় কয়েক হাজার কর্মহীন অসহায় পরিবারের মাঝে চাল বিতরন করা হয়েছে। এছাড়া তার নিজস্ব তহবিল থেকে ওইসব পরিবারের মাঝে প্রায় দুই টন আলু দেয়া হয়।তিনি বলেন সরকারিভাবে
৩৭৬ জন কর্মহীন পরিবারের মাঝে বিতরণের জন্য চলতি বরাদ্দে ১০কেজি করে ৩.৭৬০ মেট্রিক টন চাল পাওয়া গেছে। এছাড়া ওইসব পরিবারের জন্য ৫০০ গ্রাম মসুর ডাল ও ২কেজি করে আলু বরাদ্দ রয়েছে। আগামিকাল বুধবার থেকে তাদের মাঝে ওইসব খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

ইউপি চেয়ারম্যান হেলাল চৌধুরী বলেন জনসংখ্যার দিক থেকে চলতি বরাদ্দের পরিমাণ কম হলেও পর্যায়ক্রমে সকল অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হবে। তিনি এলাকার বিত্ববানদেরও অসহায়দের পাশে দাড়িয়ে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর আহবান জানান।

এরআগে কয়েক দফায় সরকারিভাবে বরাদ্দ হওয়া ১১ টন ৬৭০ কেজি চাল ১০ কেজি ১ হাজার ১৬৭ জনের মাঝে বিতরন করা হয়। এছাড়া প্রথম দফায় ৬৫ জনের মাঝে ৬৫ কেজি ডাল ও সাড়ে ৩৪ লিটার তেল দেয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here