হাতীবান্ধা আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি নির্বাচনে জোরপূর্বক স্বাক্ষর গ্রহনের অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে

0
170
হাতীবান্ধা আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি নির্বাচনে জোরপূর্বক স্বাক্ষর গ্রহনের অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে

কাজী শাহ্ আলম,লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার হাতীবান্ধা আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয় (ডাবল শিফট) এর ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি নির্বাচনে সদস্য গনের কাছ থেকে জোর করে স্বাক্ষর গ্রহন নেওয়ার অভিযোগ প্রধান শিক্ষক এম জি মোস্তফার বিরুদ্ধে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট অভিভাবক প্রতিনিধির অভিযোগ দাখিল।

প্রাপ্ত অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, শিক্ষা বোর্ডের বিধি মোতাবেক গত ২৩ মার্চ/২০ তারিখে বিনা প্রতিদন্দিতায় অভিভাবক প্রতিনিধি ও শিক্ষক প্রতিনিধি সহ ৯ জন সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। নির্বাচিত সদস্যদের মধ্য থেকে একজন কে সভাপতি নির্বাচিত করার লক্ষে নীতিমালা অনুযায়ী প্রিজাইটিং অফিসার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কন্দর্প নারায়ন রায় স্বাক্ষরিত ২৫/০৩/২০ইং বেলা আড়াইটায় এক সভা আহবান করা হয়। কিন্তু দেশে বিরাজমান করোনা ভাইরাস আতঙ্কে দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ড একই দিনে সকল কার্যক্রম স্থগিত করে পত্র প্রেরন করেন। এ লক্ষে উক্ত প্রিজাইটিং কর্মকর্তা পরবর্তি নিদের্শ না পাওয়া পর্যন্ত নির্বাচন কিংবা যাবতীয় কার্যক্রম স্থগিত ঘোষনা করেন। এমতাবস্থায় উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এমজি মোস্তফা কমিটির বাহিরে তার মনোনিত ব্যক্তি সরওয়ার হায়াত খান কে সভাপতি নির্বাচিত করতে গত ২৯ মার্চ/২০ইং তারিখ রাতে কৌশলে নিজ বাসায় নির্বাচিত সদস্যদেরকে ডেকে ২৪মার্চ তারিখে লেখা রেজুলেশন বহিসহ বিভিন্ন কাগজে জোড়পূর্বক স্বাক্ষর গ্রহন করেন। ঘৃনিত কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানিয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট প্রধান শিক্ষক এমজি মোস্তফার বিরুদ্ধে গতকাল মঙ্গলবার (৩১/০৩/২০) লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন অভিভাবক প্রতিনিধি আবেদ আলী।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক এমজি মোস্তফার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে মোবাইল বন্ধ থাকায় যোগাযোগ সম্ভব হয়নি।ইউএনও সামিউল আমিন অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, বিধি মোতাবেক তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here