গোপালগঞ্জে অন্যের স্ত্রী ধর্ষনের চেষ্টাকালে হত্যা মামলার আসামী বাবুল গ্রেপ্তার

0
59

নিজস্ব প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জে অন্যের স্ত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টাকালে গোয়েন্দা পুলিশের হাতে আটক হলো একাধিক হত্যা মামলার আসামী ও কুক্ষ্যাত সন্ত্রাসী বাবুল খান (৪০)। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গোয়েন্দ পুলিশের একটি দল সদর উপজেলার নখড়ীর চর গ্রামের নিজাম মোল্লার বাড়ীর পিছনে একটি খড়ের পালার পাশ থেকে আপত্তিকর অবস্থায় তাকে আটক করা করা হয়। আটককৃত বাবুল খান পাঁচ সন্তানের জনক এবং সদর উপজেলার সিংগারকুল গ্রামের মৃত. লুৎফার রহমান খানের ছেলে।
স্থানীয়দের অভিযোগ দীর্ঘ দিন ধরে বাবুল খান ভয়ভীতি দেখিয়ে পাশ্ববর্তী পারকুশলী গ্রামের জান্নাত চৌধুরীর স্ত্রীকে প্রেমের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষন করে আসছিল। বৃহস্পতিবার ভুক্তভোগী জান্নাত চৌধুরীরে স্ত্রী পাশ্ববর্তী নখড়ীর চর গ্রামে তার ভায়রার বাড়ীতে বাড়ীতে বেড়াতে যান। এ খবর পেয়ে ধর্ষক বাবুল খান গভীর রাতে ওই বাড়ীতে যায় ও বাড়ীর পিছনের একটি খড়ের পালার পাশে নিয়ে তাকে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। এ সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা গোপালগঞ্জের গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে হাতে-নাতে তাকে ধরে ফেলে।
গোপালগঞ্জের গোয়েন্দ পুলিশের পরিদর্শক মোক্তার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তাদের মধ্যে পরকিয়ার সম্পর্ক ছিল। আটকদের আদালতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।
ধর্ষিতার স্বামীর অভিযোগ বাবুল খান একজন সন্ত্রাসী। ধর্ষক বাবুল খান দীর্ঘ দিন ধরে ভয়ভীতি দেখিয়ে তার স্ত্রীকে ব্লাকমেইল করে ধর্ষন করছিল। তাদের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।
এদিকে, ডিবি পুলিশকে ম্যানেজ করে ঘটনাটিকে পরকিয়া বলে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে তার স্থানীয়দের অভিযোগ।
উল্লেখ্য, ধর্ষক বাবুল খান বিগত ২০০৬ সালে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার পারকুশলী গ্রামের শাহাদাৎ হত্যা ও ২০১০ সালে সিলনা গ্রামের রুবেল খান হত্যা মামলার আসামী ও একজন কুক্ষাত সন্ত্রাসী।
খবর ৭১/ই:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here