সৈয়দপুরে ভ্রাম্যমান আদালতঃ মারপিট করে টাকা ছিনিয়ে নেয়ার দায়ে তিন যুবকের কারাদন্ড

0
362
ছাতকে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ অসত্য অব্যাহতি চেয়ে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন

খবর৭১ঃ

মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুর থেকেঃ সৈয়দপুরে দু প্রেমিক প্রেমিকাকে আটকিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে টাকা ও মুঠোফোন কেড়ে নেয়ার দায়ে তিন যুবককে বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। সোমবার দুপুরে আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস.এম গোলাম কিবরিয়া ওই দন্ডাদেশ দেন। দন্ডপ্রাপ্তদের বিকেলে নীলফামারী জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানায় সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপ-পরিদর্শক মো.সাহিদুর রহমানসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য বিশেষ কাজে বসুনিয়া পাড়ায় যাচ্ছিলেন। এসময় ওই এলাকার একটি ফাঁকা স্থানে একটি মেয়েসহ কয়েকজনের জটলা দেখতে পান তারা। এসময় সেখানে দাড়িয়ে তাদের জিজ্ঞাসা করা হলে তারা বলেন আমরা সকলে আত্মীয়। কোন সমস্যা হয়নি। এ কথা শুনে পুলিশ সদস্যরা চলে আসার সময় সেখানে অবস্থান করা শাবানা (১৮) নামের ওই মেয়ে এবং তার প্রেমিক আশরাফুল (২০) পুলিশকে উদ্দেশ্য করে বলে স্যার আমাদেরকে উদ্ধার করুন।

এ কথা শোনার সাথে সাথে পুলিশ ওই মেয়ে, তার প্রেমিকসহ অপর তিন যুবককে আটক করে। এসময় প্রেমিক আশরাফুল ও প্রেমিকা শাবানা জানায়, তারা সকালে এক আত্মীয়ের বাসা থেকে বেড়িয়ে বাইপাস সড়ক দিয়ে ঢেলাপীরে আশরাফুলের ফুফুর বাড়িতে যাওয়ার জন্য রওয়ানা দেন। এসময় তিন যুবক তাদের আটক করে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে টাকা ও মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। পুলিশ এমন অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিক বিচারের জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম গোলাম কিবরিয়ার আদালতে ওই তিন যুবক তাদের দোষ স্বীকার করলে বিচারক প্রত্যেককে ১০ দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন। এসময় ওই প্রেমিক প্রেমিকার মুচলেকা নিয়ে তাদের অভিভাবকের হাতে তুলে দেয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলো- সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ি ইউনিয়নের তেলীপাড়া এলাকার জসিম উদ্দিনের পুত্র মো. মমিনুল ইসলাম (২৬), একই ইউনিয়নের কাচারীপাড়া এলাকার সোলায়মান আলীর পুত্র সফিয়ার রহমান (১৯) ও মাঝাপাড়ার অনিল চন্দ্র রায়ের পুত্র তাপস চন্দ্র রায়(২৮)।

এছাড়া মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পাওয়া প্রেমিক ও প্রেমিকা হলো সৈয়দপুর উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের আইসঢাল বানিয়া পাড়ার রমজান আলীর, পুত্র আশরাফুল ইসলাম ও তারাগজ্ঞ উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের সয়ার কুঠিপাড়ার রাজ্জাক হোসেনের কন্যা সাবানা। আটককৃতদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে দন্ডের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন থানার অফিসার,ইনচার্জ মো. শাহজাহান পাশা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here